বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > HS Exam 2021: উচ্চ মাধ্যমিক কি আদৌও হবে? ৭২ ঘণ্টার মধ্যে রিপোর্ট বিশেষজ্ঞ কমিটির
বুধবার ঘোষণা হচ্ছে না উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার নির্ঘণ্ট। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
বুধবার ঘোষণা হচ্ছে না উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার নির্ঘণ্ট। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)

HS Exam 2021: উচ্চ মাধ্যমিক কি আদৌও হবে? ৭২ ঘণ্টার মধ্যে রিপোর্ট বিশেষজ্ঞ কমিটির

  • সিবিএসই এবং সিআইএসসিই দ্বাদশ শ্রেণির বোর্ড পরীক্ষা বাতিল হয়ে যাওয়ার জন্য আবারও পরিস্থিতির পর্যালোচনার পথে হাঁটল রাজ্য?

বুধবার ঘোষণা হচ্ছে না উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার নির্ঘণ্ট। বরং শিক্ষা দফতর সূত্রে খবর, করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে এবার আদৌও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা আয়োজন করা হবে কিনা, তা পর্যালোচনার জন্য বিশেষজ্ঞ কমিটি গঠন করা হয়েছে। যে কমিটি আগামী ৭২ ঘণ্টার মধ্যে চূড়ান্ত রিপোর্ট জমা দেবে। সেই রিপোর্টের ভিত্তিতে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে।

গত সপ্তাহে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছিলেন, জুলাইয়ের শেষ সপ্তাহে হবে উচ্চ মাধ্যমিক। সেইমতো মঙ্গলবার মধ্যশিক্ষা পর্ষদ, উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করেন শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু। তারপর জানানো হয়, বুধবার যৌথ সাংবাদিক বৈঠকে উচ্চ মাধ্যমিকের নির্ঘণ্ট ঘোষণা করা হবে। তারইমধ্যে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সেন্ট্রাল বোর্ড অফ সেকেন্ডারি এডুকেশন (সিবিএসই) এবং দা ইন্ডিয়ান সার্টিফিকেট সেকেন্ডারি এডুকেশনের (সিআইএসসিই) দ্বাদশ শ্রেণির বোর্ড পরীক্ষা বাতিল করে দেওয়া হয়। তারপর বুধবার সকালে আচমকা মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিকের যৌথ সাংবাদিক বৈঠকে বাতিল হয়ে যায়।

শিক্ষা দফতর সূত্রে খবর, এবার উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ন'লাখের মতো। বর্তমান পরিস্থিতিতে আদৌও পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব হবে কিনা, তা খতিয়ে দেখার জন্য বিশেষজ্ঞ কমিটি গঠন করা হয়েছে। সেই কমিটিতে মধ্যশিক্ষা পর্ষদ, উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদদের প্রতিনিধি, শিশু অধিকার কমিশনের প্রতিনিধি, মনোবিদ এবং চিকিৎসকরা আছেন। বর্তমান পরিস্থিতিতে আদৌও পরীক্ষা নেওয়া যাবে কিনা, সে বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করবেন তাঁরা। খতিয়ে দেখবেন বিভিন্ন সম্ভাবনা। পরীক্ষা যদি বাতিল করা হয়, তাহলে কীভাবে পড়ুয়াদের নম্বর দেওয়া হবে, সেই বিষয়টিও খতিয়ে দেখা হবে। পরে আবার পরীক্ষা নেওয়া যেতে পারে কিনা, তাও বিবেচনা করা হতে পারে বলে সূত্রের খবর।

যদিও সেই সিদ্ধান্ত নিয়ে ইতিমধ্যে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। সপ্তাহদুয়েক আগেই শিক্ষামন্ত্রী বলেছিলেন, 'সংক্রমণ কমলে পরীক্ষা - এটা হেডলাইন নয়, হেডলাইন হবে - পরীক্ষা হবে সংক্রমণ কমলেই। পরীক্ষাটাই হবে, সংক্রমণ কমলে।’ শিক্ষা মহলের একাংশের বক্তব্য, পরীক্ষা নেওয়ার বিষয়ে আগেভাগেই কেন বিশেষজ্ঞ কমিটি গঠন করে পরামর্শ চাওয়া হয়নি? এখন তো সংক্রমণ তাও কিছুটা কমেছে। নাকি সিবিএসই এবং সিআইএসসিই দ্বাদশ শ্রেণির বোর্ড পরীক্ষা বাতিল হয়ে যাওয়ার জন্য আবারও পরিস্থিতির পর্যালোচনার পথে হাঁটল রাজ্য?

বন্ধ করুন