প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

স্ত্রীকে গলায় কুড়ুলের কোপ মেরে খুন করে আত্মঘাতী হলেন স্বামী

  • ঘটনাস্থলে পৌঁছয় খড়গপুর গ্রামীণ থানার পুলিশ। দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকে পুলিশকর্মীরা দেখেন, গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মঘাতী হয়েছেন ভবেশবাবুও।

মানসিক অবসাদের জেরে স্ত্রীকে হত্যা করে আত্মঘাতী হলেন স্বামী। ঘটনা পশ্চিম মেদিনীপুরের কৃষ্ণনগরের। সোমবার দুপুরে এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়ায়। পুলিশ এসে দেহ ২টি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, সোমবার দুপুরে সাংসারিক বিবাদ চলছিল ভবেশ দে ও তাঁর স্ত্রী ঝুমার মধ্যে। তখনই হঠাৎ আর্তনাদ করে ওঠেন ঝুমা। প্রতিবেশীরা ছুটে এসে দেখেন, ঝুমার গলায় কুড়ুলের কোপ মেরেছেন ভবেশ। কুড়ুল হাতে এর পর ঘরে ঢুকে পড়েন তিনি। বন্ধ করে দেন দরজা।

ঝুমাকে নিয়ে ছোটাছুটি শুরু করেন স্থানীয়রা। যদিও কিছুক্ষণের মধ্যেই তাঁর মৃত্যু হয়। ঘটনাস্থলে পৌঁছয় খড়গপুর গ্রামীণ থানার পুলিশ। দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকে পুলিশকর্মীরা দেখেন, গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মঘাতী হয়েছেন ভবেশবাবুও। এর মধ্যে সেখানে পৌঁছয় মৃতের ছেলে।

নিহতের ছেলে জানিয়েছেন, বাবা দীর্ঘদিন মানসিক রোগে ভুগছিলেন। তাঁর চিকিৎসাও চলছিল। মাথা গরম হয়ে গেলে নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারতেন না তিনি। তা থেকেই এমন কাণ্ড ঘটিয়েছেন বলে অনুমান তাঁর। ঘটনায় অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা দায়ের করেছে পুলিশ।



বন্ধ করুন