বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Malda Murder: ‘‌আমি খুন করেছি’‌, স্ত্রীর মুণ্ড কেটে চিৎকার করল স্বামী, মালদার হবিবপুরে আলোড়ন
স্ত্রীর মাথা কেটে খুন করেছেন স্বামী।

Malda Murder: ‘‌আমি খুন করেছি’‌, স্ত্রীর মুণ্ড কেটে চিৎকার করল স্বামী, মালদার হবিবপুরে আলোড়ন

  • সেটা এখনও অজানা। এই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। বচন চিৎকার করে খুনের কথা বলতেই স্থানীয়রা জাপটে ধরেন তাঁকে। খবর দেওয়া হয় হবিবপুর থানায়। পুলিশের একটি দল এসে হাজির হয় এলাকায়। বচন টুডুকে গ্রেফতার করে পুলিশ। থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। স্বামী–স্ত্রীর মধ্যে বনিবনার অভাব তেমন একটা দেখা যেত না। 

স্ত্রীকে খুন করার অভিযোগ উঠল স্বামীর বিরুদ্ধে। তবে খুন করার প্রক্রিয়া শিহরণ জাগিয়ে তুলেছে মালদার হাবিবপুরে। স্ত্রীর মাথা কেটে খুন করেছেন স্বামী। আর নিজেই চেঁচিয়ে সেই খুনের কথা প্রতিবেশীদের তিনি জানিয়েছেন। মালদার হবিবপুর থানার মঙ্গলপুরা অঞ্চলের নিরইল এলাকায় এই ঘটনায় ব্যাপক আলোড়ন পড়ে গিয়েছে। এই খুনের ঘটনায় স্বামী বচন টুডুকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তবে এই খুনের কারণ নিয়ে ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছে গোটা পরিবারে।

ঠিক কী ঘটেছে মালদায়?‌ স্থানীয় সূত্রে খবর, ওই ব্যক্তি স্ত্রীর সঙ্গে শ্বশুরবাড়িতেই বসবাস করত। আজ, শুক্রবার সকালে চিৎকার করে বচন জানায়, স্ত্রীকে খুন করেছে সে। এই ঘটনায় সন্দেহ হতেই প্রতিবেশীরা বচনের বাড়িতে হাজির হন। সেখানে প্রতিবেশীরা গিয়ে দেখেন, একদিকে দেহ পড়ে অন্যদিকে পড়ে রয়েছে কাটা মাথা। তা নিয়ে হইচই পড়ে যায়। এলাকার লোকজন ছুটে আসেন। এমন নৃশংস দৃশ্য দেখে চোখ কপালে উঠেছে সকলের।

পুলিশ কী তথ্য পেয়েছে?‌ এই খুনের ঘটনায় পুলিশ এসে তদন্ত শুরু করে। নিহত ওই মহিলার নাম সাবিত্রী রায়। আর স্বামীর নাম বচন টুডু। কীভাবে এই ঘটনা ঘটল?‌ তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। অভিযুক্ত স্বামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ মনে করছে, বচন টুডু মানসিক কিছু সমস্যায় ভুগছে। স্ত্রীকে খুন করার পিছনে ভয়াবহ কোনও মনের সমস্যার রয়েছে কি না তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। স্ত্রী সাবিত্রীর দেহ ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে।

আর কী জানা যাচ্ছে?‌ কী কারণে এমন নৃশংসতা? সেটা এখনও অজানা। এই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। বচন চিৎকার করে খুনের কথা বলতেই স্থানীয়রা জাপটে ধরেন তাঁকে। খবর দেওয়া হয় হবিবপুর থানায়। পুলিশের একটি দল এসে হাজির হয় এলাকায়। বচন টুডুকে গ্রেফতার করে পুলিশ। থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। স্বামী–স্ত্রীর মধ্যে বনিবনার অভাব তেমন একটা দেখা যেত না। তাহলে কেন এমন খুন?‌ তদন্তে নেমেছে পুলিশ।

বন্ধ করুন