বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > স্ত্রীকে খুন করে আত্মহত্যা স্বামীর, জোড়া মৃতদেহ উদ্ধার জগদ্দল এলাকায়
জোড়া মৃতদেহ উদ্ধার।
জোড়া মৃতদেহ উদ্ধার।

স্ত্রীকে খুন করে আত্মহত্যা স্বামীর, জোড়া মৃতদেহ উদ্ধার জগদ্দল এলাকায়

  • ভাটপাড়া পুরসভার ১৬ নম্বর ওয়ার্ডে ছেলেকে নিয়ে বসবাস করতেন রম্ভা দেবী চৌহান। তিনি জুটমিলে কাজ করতেন। আর স্বামী নির্মল চৌহান কর্মসূত্রে ভিনরাজ্যে থাকতেন। কয়েকদিন আগে তিনি ভাটপাড়ার বাড়িতে আসেন।

এবার জোড়া মৃতদেহ উদ্ধার হল জগদ্দল থানা এলাকায়। স্ত্রীকে খুন করে স্বামী আত্মঘাতী হয়েছে বলে মনে করছে পুলিশ। তাদের বাড়ি থেকেই জোড়া মৃতদেহ উদ্ধার হয়। এই ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়াল জগদ্দল থানার অ্যালায়েন্স জুটমিল সংলগ্ন এলাকায়। এই ঘটনার পিছনে অন্য কিছু লুকিয়ে রয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

ঠিক কী মনে করছে পুলিশ?‌ পুলিশ সূত্রে খবর, মৃত মহিলার নাম রম্ভা দেবী চৌহান (‌৪০)‌। আর স্বামী নির্মল চৌহান (‌৪৮)‌। প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে, স্ত্রীকে খুন করে স্বামী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মঘাতী হয়েছেন। যদিও মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে। সেই রিপোর্ট আআর পর মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে।

ঠিক কী ঘটেছে সেখানে?‌ স্থানীয় সূত্রে খবর, ভাটপাড়া পুরসভার ১৬ নম্বর ওয়ার্ডে ছেলেকে নিয়ে বসবাস করতেন রম্ভা দেবী চৌহান। তিনি জুটমিলে কাজ করতেন। আর স্বামী নির্মল চৌহান কর্মসূত্রে ভিনরাজ্যে থাকতেন। কয়েকদিন আগে তিনি ভাটপাড়ার বাড়িতে আসেন। শুক্রবার তাঁদের ছেলে ছিলেন এক আত্মীয়র বাড়িতে। কিন্তু সারাদিন স্বামী–স্ত্রী দু’জনকে না দেখতে পেয়ে প্রতিবেশীদের সন্দেহ হয়। তখনই তাঁরা খবর দেন জগদ্দল থানায়।

পরিবার কী বলছে ঘটনা নিয়ে?‌ এই ঘটনার বিষয়ে মৃতার ভাই অরুণ কুমার চৌহান বলেন, ‘‌বারবার দিদিকে ভিনরাজ্যে নিয়ে যাওয়ার কথা বলতেন স্বামী নির্মল চৌহান। কিন্তু দিদি জুটমিলে কাজ করতেন বলে রাজি হতেন না। এই নিয়ে দু’জনের মধ্যে অশান্তি ছিল। এখন এই ঘটনা ঘটে গেল।’‌ মা–বাবাকে হারিয়ে অন্ধকারে ছেলে।

বন্ধ করুন