বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > 'আমি ফিরছি সুন্দরবনে ঝড়ের বিরুদ্ধে তৈরি হতে,' চেনা ছন্দে 'কমরেড' কান্তি
এভাবেই সুন্দরবনের মানুষের পাশে বরাবর দেখা গিয়েছে প্রাক্তন মন্ত্রী কান্তি গঙ্গোপাধ্যায় (ফেসবুক)
এভাবেই সুন্দরবনের মানুষের পাশে বরাবর দেখা গিয়েছে প্রাক্তন মন্ত্রী কান্তি গঙ্গোপাধ্যায় (ফেসবুক)

'আমি ফিরছি সুন্দরবনে ঝড়ের বিরুদ্ধে তৈরি হতে,' চেনা ছন্দে 'কমরেড' কান্তি

  • ঝড়ের আগে কান্তি আসেন, কেউ তো আসেন না, সুন্দরবনের মুখে মুখে ফেরা এই আপ্তবাক্যকে কার্যত সত্যে পরিণত করতে ফের ইয়াসের আগে সুন্দরবন ছুটছেন কান্তি গঙ্গোপাধ্যায়

একের পর এক নির্বাচনে পরাজয় হয়েছে তাঁর। ভোটের নিরিখে বার বার পিছিয়ে পড়েছেন তিনি। এবারের নির্বাচনেও হেরেছেন তিনি। কিন্তু বাসিন্দাদের একাংশের মতে, মানুষের পাশে থাকার লড়াইতে একেবারেই পিছিয়ে পড়েননি তিনি। শুধু কথার কথা নয়. একেবারে বাস্তবের কঠিন মাটিতে তিনি করে দেখিয়েছেন বরাবরের ক্লান্তিহীন কান্তি গঙ্গোপাধ্য়ায়। পরাজয়ের ঝড় বয়ে গিয়েছে গোটা দলের উপর দিয়ে, তবুও প্রাক্তন বামমন্ত্রী কান্তি গঙ্গোপাধ্যায় মানুষের পাশে থাকার নিরিখে একবারও পিছিয়ে পড়তে রাজি নন। ইতিমধ্যেই সুন্দরবন এলাকায় কোভিড হাসপাতালও খুলেছেন তিনি। এবার সামনে বড় বিপর্যয়ের আশঙ্কা। সেটা আঁচ করেই ফেসবুকে পোস্ট করে তিনি লিখেছেন, 'আমি ফিরছি সুন্দরবনের ঝড়ের বিরুদ্ধে তৈরি হতে।' একবার দেখে নেওয়া যাক ঠিক কী লিখেছেন তিনি। প্রসঙ্গত বলা যায় ফেসবুকে তাঁর পরিচয় দেওয়া রয়েছে ‘বামপন্থী কমরেডস।’

তিনি লিখেছেন,  রাজ্য প্রতিবন্ধী সম্মিলনীর ত্রাণ কেন্দ্রর কাজ চলছে পুরোদস্তুর। আমি ফিরছি সুন্দরবনে ঝড়ের বিরুদ্ধে তৈরি হতে। রাজ্য সরকারের ও মানুষের কাছে দুটি আবেদন: ১) ফ্লাড শেল্টারে মানুষকে আশ্রয় দেওয়ার আগে দেহের তাপমাত্রা দেখে নেওয়া হোক ও অসুস্থ সাধারণ মানুষের জন্য আলাদা আশ্রয় তৈরি করা হোক, যাতে গ্রামে করোনা আরও ছড়িয়ে না যায়। ২) মানুষের পানীয় দরকার পড়লে বৃষ্টির জল যেন জমা করে রাখেন কারণ বাঁধ ভাঙলে নোনা জল পান এর অযোগ্য।

একথাই লিখেছেন কান্তি গঙ্গোপাধ্যায়। অর্থ্যাৎ বর্তমান করোনা পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে করোনার উপসর্গ রয়েছে এমন ব্যক্তিদের জন্য আলাদা আশ্রয়স্থল তৈরির পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। মূলত সংক্রমণ এড়াতেই তাঁর এই পরামর্শ। পাশাপাশি নিজেদের উদ্যোগেও ত্রাণ কেন্দ্র তৈরির কথাও জানিয়েছেন তিনি। 

 

বন্ধ করুন