বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > 'কেন্দ্রের সঙ্গে কথা বলব,' মন্ত্রী হয়েই বাংলা ভাগের দাবিতে সুর চড়ালেন বারলা
কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জন বারলা (ফাইল ছবি)
কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জন বারলা (ফাইল ছবি)

'কেন্দ্রের সঙ্গে কথা বলব,' মন্ত্রী হয়েই বাংলা ভাগের দাবিতে সুর চড়ালেন বারলা

  • 'এটা স্থানীয় জনগণের দীর্ঘ সময়ের দাবি। বিষয়টি নিয়ে কেন্দ্রের সঙ্গে কথা বলব। জনতার দাবিকে দাবিয়ে রাখা যায় না।' দাবি জন বারলার

আশঙ্কাটাই সত্যি হল। মন্ত্রীত্ব পাওয়ার পরেই ফের আলাদা রাজ্যের দাবিতে সুর চড়ালেন আলিপুরদুয়ারের সাংসদ তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জন বারলা। তিনি যে তাঁর দাবি থেকে এতটুকু সরেননি কোনও রাখঢাক না করেই সরাসরি জানিয়ে দিয়েছেন তিনি। তাঁর দাবির পক্ষে নানা যুক্তিও দিয়েছেন  তিনি। তাঁর স্পষ্ট দাবি, ‘উত্তরবঙ্গকে স্বাধীন রাজ্য করার দাবি প্রায় ১০০ বছরের পুরানো। এটা স্থানীয় জনগণের দীর্ঘ সময়ের দাবি। বিষয়টি নিয়ে কেন্দ্রের সঙ্গে কথা বলব। জনতার দাবিকে দাবিয়ে রাখা যায় না। তবে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হিসাবে শপথ নেওয়ার ওই মুহূর্তে এর চেয়ে বেশি কিছু বলতে চাই না।’ তবে মন্ত্রী হওয়ার আগে থেকেই তিনি বার বার আলাদা রাজ্যের দাবিতে সরব হয়েছেন। 

উত্তরবঙ্গের নানা বঞ্চনার কথা উল্লেখ করে তিনি আলাদা রাজ্যের দাবি তুলেছেন। এতদিন পৃথক রাজ্যের দাবিতে আন্দোলন করা কেপিপি, গ্রেটারের একাংশ সহ একাধিক আঞ্চলিক দল বারলার পাশে থাকার আশ্বাস দিয়েছেন। এমনকী বিজেপির একাধিক বিধায়কও এনিয়ে বারলার পাশে রয়েছেন। তবে রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ অবশ্য বারলার মন্তব্যের সঙ্গে একমত হতে পারেননি। বারবার তিনি বারলার রাজ্যভাগের দাবিকে নাকচ করেছেন। কিন্তু তারপরেও দাবি থেকে সরেননি বারলা। এবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হওয়ার পরেও বারলা কার্যত দ্বিগুণ উৎসাহে নেমে পড়েছেন তাঁর দাবির সমর্থনে যুক্তি হাজির করতে। তবে কোচবিহারের সাংসদ তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নিশীথ প্রামাণিক অবশ্য অনেকটাই সাবধানী। রাজ্য ভাগাভাগি প্রসঙ্গে তাঁর দাবি, ‘আজ সদ্য দায়িত্ব পেলাম। আগে গোটাটা বুঝতে দিন।’

 

বন্ধ করুন