বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ক্যান্সেল চেকে টাকা হাতাল জালিয়াতরা! বাড়ি বিক্রি করতে গিয়ে খোয়াল লক্ষাধিক টাকা
ছবিটি প্রতীকী। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য় প্রদীপ গৌর/লাইভ মিন্ট)
ছবিটি প্রতীকী। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য় প্রদীপ গৌর/লাইভ মিন্ট)

ক্যান্সেল চেকে টাকা হাতাল জালিয়াতরা! বাড়ি বিক্রি করতে গিয়ে খোয়াল লক্ষাধিক টাকা

  • ক্যান্সেল চেক দিয়েই নাকি বৃদ্ধের অ্যাকাউন্ট থেকে ২ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা তুলেছে জালিয়াতরা।

অভিনব কায়দায় বৃদ্ধের অ্যাকান্ট থেকে ২ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা হাতিয়ে নিল জালিয়াতরা। ঘটনাটি উত্তর ২৪ পরগনার বনগাঁর। জানা গিয়েছে নিজের বাড়ি বিক্রি করতে চেয়ে বিজ্ঞাপন দিয়েছিলেন বনগাঁর পুরনো চাকদহ বাসস্ট্যান্ড এলাকার বাসিন্দা শ্যামসুন্দর কুণ্ডু। এরপর বাড়ি কিনতে আগ্রহী দুই ব্যক্তি বাড়ি দেখেযান। কথাবার্তা হওয়ার পর দুই ব্যক্তি বাড়ি কেনার বিষয়ে ইতিবাচক ইঙ্গিত দেন। অগ্রিম বাবদ তিন লক্ষ টাকার একটি চেক শ্যামসুন্দরবাবুকে দিয়ে যায় সেই দুই ব্যক্তি। পাশাপাশি আরও টাকা দেওয়ার জন্য শ্যামসুন্দর কুণ্ডুর ক্যানসেল চেক তারা চেয়ে নেয় তারা। সেই ক্যান্সেল চেক দিয়েই নাকি বৃদ্ধের অ্যাকাউন্ট থেকে ২ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা তুলেছে জালিয়াতরা।

জানা গিয়েছে, শ্যামসুন্দরবাবুর অন্যমনস্কতায় ব্ল্যাঙ্ক চেকে নিজেরাই 'ক্যান্সেল' লিখেছিল ক্রেতা সেজে আসা দুই ব্যক্তি। এর দুই দিন পর বনগাঁর এক রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের শাখায় থাকা শ্যামসুন্দরবাবুর অ্যাকাউন্ট থেকে তোলা হয় দুই লক্ষ আশি হাজার টাকা। এরপরই বিষয়টি বুঝতে পারেন শ্যামসুন্দরবাবু। সেই সময় ব্যাঙ্কের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। তবে শ্যামসুন্দরবাবুর অভিযোগ ব্যাঙ্ক তাঁর সঙ্গে অসহযোগিতা করেছে।

এরপরই শ্যামসুন্দরবাবু বনগাঁ থানার দ্বারস্থ হন এবং তাঁর পক্ষ থেকে জবাব চেয়ে বনগাঁর সেই রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কে লিগাল নোটিস পাঠিয়েছেন তাঁর আইনজীবী দীপাঞ্জয় দত্ত। এই বিষয়ে শ্যামসুন্দর কুণ্ডুর স্ত্রীর অভিযোগ, এইভাবে এত মোটা অঙ্কের টাকা তোলা হল, কিন্তু আমরা প্রথমে তা জানতে পারলাম না। ব্যাঙ্কেরও সন্দেহ হল না। এদিকে পজিটিভ পেমেন্ট সিস্টেম চালু হয়েছে চলতি মাসের শুরুতেই। তারপরও এরকম জালিয়াতি কীভাবে হল, তা নিয়ে ধন্দ রয়েছে।

বন্ধ করুন