বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > সুন্দরবনে ১১ ফুটের কিং কোবরা উঠে এল মৎসজীবীর জালে
সুন্দরবনে ১১ ফুটের কিং কোবরা উঠে এল মৎসজীবীর জালে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)
সুন্দরবনে ১১ ফুটের কিং কোবরা উঠে এল মৎসজীবীর জালে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)

সুন্দরবনে ১১ ফুটের কিং কোবরা উঠে এল মৎসজীবীর জালে

  • এদিন  নদীতে মাছ ধরতে গিয়েছিলেন কয়েকজন মৎসজীবী। মাছ ধরার জন্য নদীর জলে জাল ফেলেন তাঁরা। তখনই তাদের মধ্যে মতিরাম সর্দার নামে এক মৎসজীবীর জালে ধরা পড়ে ওই প্রকাণ্ড সাপটি। মৎসজীবী জানিয়েছেন, সাপটির গায়ের রঙ কালো ও রুপলি মিশিয়ে।

বৃহৎ আকারের কিং কোবরা উদ্ধার হল সুন্দরবনে। মাছ ধরতে গিয়ে নদীর ধার থেকে সাপটিকে উদ্ধার করা হয়েছে। ১১ ফুট লম্বা কিং কোবরা প্রজাতির সাপটি মৎসজীবীদের জালে উঠে আসে। খবর পেয়ে বনদফতরের কর্মীরা ঘটনাস্থলে এসে সাপটিকে উদ্ধার করে নিয়ে যান। বনদফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, সাপটি কিং কোবরা প্রজাতির। তাকে চিকিৎসা করে আবার গভীর জঙ্গলে ছেড়ে দেওয়া হবে।

সোমবার ঘটনাটি ঘটেছে বসিরহাট মহকুমার সুন্দরবনের সন্দেশখালি দু’‌নম্বর ব্লকের খুলনা গ্রাম সংলগ্ন রায়মঙ্গল নদীতে। এদিন ওই নদীতে মাছ ধরতে গিয়েছিলেন কয়েকজন মৎসজীবী। মাছ ধরার জন্য নদীর জলে জাল ফেলেন তাঁরা। তখনই তাদের মধ্যে মতিরাম সর্দার নামে এক মৎসজীবীর জালে ধরা পড়ে ওই প্রকাণ্ড সাপটি। মৎসজীবী জানিয়েছেন, সাপটির গায়ের রঙ কালো ও রুপলি মিশিয়ে।

বনদফতরের প্রাথমিক অনুমান, ইয়াসের তাণ্ডবে বিধ্বস্ত হয়ে পড়েছে সুন্দরবনের জঙ্গল। নোনা জলের জলস্তর বাড়ায়, বনারণ্যের মধ্যে খাবারের অভাব দেখা দিয়েছে। সেজন্য খাবারের খোঁজে নদী পেরিয়ে লোকালয় ঢুকে পড়ছে বন্য প্রাণীরা। সেক্ষেত্রে বিষধর সাপও খাবারের খোঁজে নদী পেরিয়ে বসত এলাকার দিকে চলে আসছে।

এর আগেও সুন্দরবন এলাকা থেকে সাপ উদ্ধার হয়েছিল। গত ২২ জুন হিঙ্গলগঞ্জের মাহমুদপুরের এক মৎসজীবীর জালে বিশালাকৃতির কালকেউটে সাপ ধড়া পড়েছিল। এদিনের কিং কোবরা নিয়ে মোট দু’‌‌টি বিরল প্রতাজির সাপ ধড়া পড়ল সুন্দরবনে।

 

বন্ধ করুন