বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > বেকাররা হতাশাগ্রস্ত, রাজ্যে কর্মসংস্থান সৃষ্টির একমাত্র উপায় হল শিল্পায়ন: রাজীব
বনমন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। ছবি সৌজন্য : ফেসবুক
বনমন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। ছবি সৌজন্য : ফেসবুক

বেকাররা হতাশাগ্রস্ত, রাজ্যে কর্মসংস্থান সৃষ্টির একমাত্র উপায় হল শিল্পায়ন: রাজীব

  • এদিনও শুভেন্দুর সঙ্গে তাঁর যোগাযোগের কথা অস্বীকার করেন রাজীববাবু। বলেন, ‘শুভেন্দু কী করবেন তা তাঁর ব্যক্তিগত ব্যাপার। শুভেন্দুর ব্যাপারে আমার কাছে প্রশ্ন করা অবান্তর’।বলেন, ‘আমাকে অনেকেই অনেক ক্ষেত্রে বঞ্চিত করেছেন। তবে দল ডাকলে আবার বৈঠকে যাবো।’

রবিবারের বৈঠকে যে বরফ গলেনি মঙ্গলবার তা বুঝিয়ে দিলেন তৃণমূল সরকারের মন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। পুরনো অবস্থানে অনড় তো রইলেনই সঙ্গে জুড়লেন নতুন অভিযোগ। তবে আলোচনার রাস্তা এখনই বন্ধ করতে নারাজ রাজীব। 

দুঃস্থ ছাত্রছাত্রীদের জন্য সরকারি প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষার প্রশিক্ষণের উদ্বোধন করে মঙ্গলবার লিলুয়ার পাকুড়িয়াতে ফের দলের বিরুদ্ধে সরব হন রাজীব। বলেন, ‘আমাকে অনেকেই অনেক ক্ষেত্রে বঞ্চিত করেছেন। তবে দল ডাকলে আবার বৈঠকে যাবো।’

সঙ্গে বেকার সমস্যার সমাধানে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের চাঞ্চল্যকর দাবি, ‘বাম জমানা থেকে রাজ্যে শিল্পের খরা চলছে। যার ফলে কর্মসংস্থান তৈরি হচ্ছে না। চাকরি না পেয়ে হতাশ হয়ে পড়ছেন যুবক যুবতীরা। আগামী দিনে রাজ্যে ব্যাপক কর্মসংস্থানের স্বার্থে শিল্পায়ন চাই। শিল্পায়ন ছাড়া এই হতাশা দূর করা যাবে না’।

তবে এদিনও শুভেন্দুর সঙ্গে তাঁর যোগাযোগের কথা অস্বীকার করেন রাজীববাবু। বলেন, ‘শুভেন্দু কী করবেন তা তাঁর ব্যক্তিগত ব্যাপার। শুভেন্দুর ব্যাপারে আমার কাছে প্রশ্ন করা অবান্তর’।

গত কয়েক সপ্তাহ ধরে রাজ্যের বনমন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়ে নানা জল্পনা ছড়িয়েছে। রাজীববাবুর নানা কথায় অস্বস্তি বেড়েছে তৃণমূলের। এমনকী ‘যত মত, তত পথ’-এর মতো ইঙ্গিতপূর্ণ মন্তব্যও করেছেন রাজীব। গত রবিবার কলকাতায় পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বাড়িতে পার্থবাবু ও প্রশান্ত কিশোরের সঙ্গে বৈঠকে বসেন তিনি। কিন্তু সেই বৈঠকের পরও যে তাঁর ক্ষোভ প্রশমিত হয়নি বেরিয়েই তা বুঝিয়ে দিয়েছিলেন রাজীব। 

 

বন্ধ করুন