বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Bankura: ফের রোগীর পরিবারের হাতে আক্রান্ত ইন্টার্নরা, নিরাপত্তার দাবিতে কর্মবিরতির ডাক
বাঁকুড়া সম্মিলনী কেলেজের ইন্টার্নদের কর্মবিরতি। প্রতীকী ছবি

Bankura: ফের রোগীর পরিবারের হাতে আক্রান্ত ইন্টার্নরা, নিরাপত্তার দাবিতে কর্মবিরতির ডাক

  • তাদের অভিযোগ, গতকাল রাতে মেল মেডিসিন ওয়ার্ডে পরপর দুজন রোগী মারা যায় সেই সময় কোনও অভিজ্ঞ চিকিৎসক ছিলেন না। ফলে তারাই চিকিৎসা করছিলেন। কিন্তু রোগী মৃত্যুর ঘটনায় তাদের উপর ক্ষুব্ধ হয়ে হামলা চালায় রোগী পরিবার। ইতিমধ্যে এই ঘটনায় থানায় অভিযোগ জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

ফের রোগী মৃত্যুর ঘটনায় চিকিৎসককে নিগ্রহের অভিযোগ উঠল। এর প্রতিবাদে কর্ম বিরতি ডাক দিলেন বাঁকুড়া সম্মিলনী মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের জুনিয়র ডাক্তার, ইন্টার্ন সহ ডাক্তারি পড়ুয়ারা। তাদের দাবি অবিলম্বে তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। প্রতিবারই রোগী মৃত্যুর ঘটনায় তাদের আক্রান্ত হতে হচ্ছে। প্রতিশ্রুতি দিলেই চলবে না পাকাপাকিভাবে নিরাপত্তার ব্যবস্থার করার দাবি জানিয়েছেন জুনিয়র ডাক্তাররা।

গতকাল রাতে ওই মেডিক্যাল কলেজের ইন্টার্নরা রোগী পরিবারের হাতে আক্রান্ত হয়েছেন বলে অভিযোগ। তাদের অভিযোগ, গতকাল রাতে মেল মেডিসিন ওয়ার্ডে পরপর দুজন রোগী মারা যায় সেই সময় কোনও অভিজ্ঞ চিকিৎসক ছিলেন না। ফলে তারাই চিকিৎসা করছিলেন। কিন্তু রোগী মৃত্যুর ঘটনায় তাদের উপর ক্ষুব্ধ হয়ে হামলা চালায় রোগী পরিবার। ইতিমধ্যে এই ঘটনায় থানায় অভিযোগ জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। প্রসঙ্গত বাঁকুড়া সম্মিলনী মেডিকেল কলেজে ১৫০ জন ইন্টার্ন সহ ৩৫০ জন ডাক্তারি পড়ুয়া রয়েছে।

তাদের অভিযোগ, এই নিয়ে গত তিন মাসে তিনবার তারা রোগী পরিবারের হাতে আক্রান্ত হয়েছেন। প্রতিবারই এই ধরনের ঘটনার পর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের তরফে তাদের নিরাপত্তার আশ্বাস দেওয়া হয়েছে। কিন্তু কোনই কাজ হয়নি। তাই এবার পাকাপাকিভাবে নিরাপত্তার ব্যবস্থা করতে হবে বলে দাবি জানান ইন্টার্নরা। তাদের বক্তব্য, নিরাপত্তার জন্য মেডিসিন ওয়ার্ডে মাত্র দুইজন লাঠিধারী নিরাপত্তা থাকেন। তার উপর মাত্র দুজন ইন্টার্নকে রাতে বিপুল পরিমাণ রোগীর চাপ সামলাতে হয়। ফলে নিরাপত্তা ছাড়া তাদের পক্ষে কাজ করা সম্ভব নয় বলে তারা জানিয়েছেন।

অন্যদিকে, স্টুডেন্টস অ্যাসোসিয়েশন অফ ডিন চিকিৎসক রণদেব বন্দ্যোপাধ্যায় কর্মবিরতির কথা স্বীকার করেননি। তিনি বলেন, হাসপাতালের সমস্ত পরিষেবা চালু রয়েছে। হাসপাতালে রোগী মৃত্যুর ঘটনা অস্বাভাবিক কিছু নয়। চিকিৎসকরা আপ্রাণ রোগীকে বাঁচানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু অনেক ক্ষেত্রেই রোগী মারা যায়।

বন্ধ করুন