বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > সেচ প্রতিমন্ত্রীর প্যাডে চাকরীর সুপারিশ, সাবিনার চিঠি ঘিরে তোলপাড় মালদহ
মন্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন। 
মন্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন। 

সেচ প্রতিমন্ত্রীর প্যাডে চাকরীর সুপারিশ, সাবিনার চিঠি ঘিরে তোলপাড় মালদহ

  • জেলাজুড়ে অভিযোগ, রাজ্যের মন্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন নিজের প্যাডে চিঠি লিখে এক ব্যক্তির চাকরির জন্য সুপারিশ করেছেন।

সরকারি চাকরি কী এখন সুপারিশে হচ্ছে? রাজ্যজুড়ে এখন এই প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে। কারণ‌ রাজ্যের সেচ প্রতিমন্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিনের লেখা একটি সুপারিশ চিঠির জেরেই এই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। তৈরি হয়েছে রাজনৈতিক বিতর্ক। জেলাজুড়ে অভিযোগ, রাজ্যের মন্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন নিজের প্যাডে চিঠি লিখে এক ব্যক্তির চাকরির জন্য সুপারিশ করেছেন। সেই চিঠি এখন ছড়িয়ে পড়েছে। যদিও ওই ধরনের অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দিয়েছেন সাবিনা।

ওই চিঠিতে কোনও তারিখ নেই। কী লেখা রয়েছে চিঠিতে?‌ চিঠিটি লেখা হয়েছে, জনস্বাস্থ্য ও কারিগরি দফতরের নির্বাহী বাস্তুকারের উদ্দেশ্যে। চিঠিতে সুব্রত ঘোষ নামে এক ব্যক্তির নাম করে লেখা হয়েছে, ‘‌জোতকরম চৌধুরীটোলার এই ব্যক্তি আমার পরিচিত ও অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ। সে বেকার ও দরিদ্র পরিবারের সন্তান। তাঁকে আপনার দফতরের সিকিউরিটি গার্ড বা অপারেটার বা প্ল্যান্টের কোনও কাজে নিয়োগ করার অনুরোধ জানাচ্ছি।’‌ চিঠির নীচে সাবিনা ইয়াসমিনের নামে সাক্ষর ও সিল রয়েছে।

এই চিঠি প্রকাশ্যে আসতেই জোর চর্চা শুরু হয়েছে। এমনকী মন্ত্রীর বিরুদ্ধে পক্ষপাতমূলক আচরণের অভিযোগ উঠেছে। প্রশাসনকেও প্রভাবিত করেছেন মন্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন বলেও অভিযোগ উঠেছে। যদিও ওই চিঠির বিষয়ে সাবিনা ইয়াসমিন বলেন, ‘‌বদনাম করার জন্যই ওই ধরনের চিঠি তৈরি করা হয়েছে। না হলে চিঠিটি সংশ্লিষ্ট দফতরে পৌঁছনোর আগেই ভাইরাল হল কী করে?‌ বিষয়টি নিয়ে পুলিশে অভিযোগ করেছি। ওই চিঠিতে যে সাক্ষর রয়েছে সেটা আমার নয়।’‌

এই বিষয়ে বিজেপির জেলা সভাপতি গোবিন্দ চন্দ্র মণ্ডল বলেন, ‘‌একজন মন্ত্রীর সই জাল করে এমন চিঠি ভয়ঙ্কর ব্যাপার। রাজ্যের প্রতিমন্ত্রীর সই জাল হলো কি করে?‌’‌ তদন্তে নেমেছে পুলিশ। চিঠিটি পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে। পুলিশ সূত্রে খবর, এই চিঠিটি ইচ্ছাকৃতভাবে কেউ লিখে তা ভাইরাল করেছে। সাইবার ক্রাইম বিভাগের সঙ্গে যোগাযোগ করা হচ্ছে। চিঠিটিও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

বন্ধ করুন