বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > অনলাইন জুয়ায় সব খুইয়ে দেনায় ‘ডুব’, জলপাইগুড়িতে আত্মঘাতী বছর পঁচিশের যুবক
ছবিটি প্রতীকী
ছবিটি প্রতীকী

অনলাইন জুয়ায় সব খুইয়ে দেনায় ‘ডুব’, জলপাইগুড়িতে আত্মঘাতী বছর পঁচিশের যুবক

  • আত্মঘাতী যুবকের দাদা মহম্মদ ভানু জানান, সবাইকে বাড়ির বাইরে পাঠিয়ে সাহেন তার বাবার ঘরে গলার ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে।

ক্রিকেট বেটিংয়ের জেরে সর্বস্বান্ত হয়ে আত্মহত্যা করলেন বছর পঁচিশের এক যুবক। ঘটনাটি জলপাইগুড়িতে ঘটেছে। মৃত যুবকের দাম সাহেন আলি। তাঁর স্ত্রী, সন্তান ও মা আছে বাড়িতে। আইপিএল এবং পরবর্তীতে টি-২০ বিশ্বকাপ চলাকালীন সাহেন নাকি অনলাইন জুয়ার সঙ্গে যুক্ত ছিল। জুয়ার জন্য দেনার দায়ে ডুবে গিয়েছিল সে। এর জেরেই এমন কাণ্ড বলে দাবি পরিবারের সদস্যদের। সাহেনের দাদা মহম্মদ ভানু জানান, সবাইকে বাড়ির বাইরে পাঠিয়ে সাহেন তার বাবার ঘরে গলার ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে।

জানা গিয়েছে, জলপাইগুড়ি সদর ব্লকের পাতকাটা গ্রাম পঞ্চায়েতের মোড়ল পাড়ার গ্রামে থাকত সাহেন। জুয়া টাকা ঢালতে বিস্তর টাকা ঋণ নিয়েছিল সাহেন। তবে জুয়ায় হেরে সেই টাকা মেটাতে পারেনি সে। আর কোনও পথ না খুঁজে পেয়ে শেষ পর্যন্ত আত্মহত্যা করতে বাধ্য হয় সে। জুয়ায় যুক্ত থাকাকালীন নাকি পারিবারিক অশান্তিও লেগে থাকত সাহেনের।

গতবছর এই অনলাইন জুয়াতেই ২০ লক্ষ টাকা জিতেছিল সাহেন। দু’টি বাইক ও চারচাকা গাড়ি কিনেছিল সেই টাকা দিয়ে। তবে কয়েক মাস পরেই সেগুলি বিক্রি করে দেয় সে। জানা যায়, জুয়ার টাকা মেটাতেই গাড়িগুলি বিক্রি করেছিল সে। কয়েকদিন আগেও তার দেনার পরিমাণ গিয়ে দাঁড়ায় প্রায় সাত লক্ষ টাকা। এর জেরে নাকি মানসিক অবসাদে ডুবে যায় সে। ঘটনার পর সাহেনের দাদা মহম্মদ ভানু অনলাইন জুয়া বন্ধের দাবি তোলেন।

 

বন্ধ করুন