বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির পর আদালতে আত্মসমর্পণ করলেন জন বারলা

গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির পর আদালতে আত্মসমর্পণ করলেন জন বারলা

বিজেপি সাংসদ জন বারলা।

গত ১৫ নভেম্বর তুফানগঞ্জ আদালতে সেই মামলার শুনানিতে হাজির ছিলেন না জন বারলা বা তাঁর কোনও প্রতিনিধি। এর পরই কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রীর বিরুদ্ধে জামিযোগ্য গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন বিচারক।

গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির পর আদালতে আত্মসমর্পণ করলেন কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী জন বারলা। শনিবার তুফানগঞ্জ আদালতে আত্মসমর্পণ করেন তিনি। নির্বাচনী বিধিভঙ্গের অভিযোগে গত ১৫ নভেম্বর তাঁর বিরুদ্ধে জামিনযোগ্য গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছিল আদালত।

আদালতের তরফে জানা গিয়েছে, ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনের প্রচারে একটি বাইক মিছিলে অংশগ্রহণ করেছিলেন জন বারলা। ওই বাইক মিছিলের কোনও অনুমতি ছিল না। তাই তাঁর বিরুদ্ধে বক্সিরহাট থানায় অভিযোগ দায়ের করেছিল নির্বাচন কমিশন।

গত ১৫ নভেম্বর তুফানগঞ্জ আদালতে সেই মামলার শুনানিতে হাজির ছিলেন না আলিপুরদুয়ারের সাংসদ জন বারলা বা তাঁর কোনও প্রতিনিধি। এর পরই কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রীর বিরুদ্ধে জামিযোগ্য গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন বিচারক।

শনিবার সকাল ১০টার কিছু পরে সমর্থক ও জেলা বিজেপি নেতৃত্বকে সঙ্গে নিয়ে তুফানগঞ্জ আদালতে হাজির হন জন বারলা। আদালতের ভিতরে আত্মসমর্পণের আইনি প্রক্রিয়া মেটাচ্ছেন তিনি। এই মামলায় মোট ৪ জন অভিযুক্ত ছিলেন। তার মধ্যে ৩ জন আগেই মুক্তি পেয়েছিলেন।

উল্লেখ্য, কয়েকদিন আগে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী নিশীথ প্রামাণিকের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হয়েছিল। গয়নার দোকানে চুরি করার অভিযোগ ছিল তাঁর বিরুদ্ধে। এই মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছিল। এবার জন বারলার ক্ষেত্রেও একই পদক্ষেপ করা হল। তবে এই গ্রেফতারি পরোয়ানা কবে কার্যকর হবে তা এখনও স্পষ্ট নয়।

 

বন্ধ করুন