বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > এবার কি কেন্দ্রে পৃথক উত্তরবঙ্গের সওয়াল? মন্ত্রিত্ব পেয়ে জানালেন জন বারলা
রাষ্ট্রপতি ভবনে শপথ নেওয়ার পর বারলা। (ছবি সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)
রাষ্ট্রপতি ভবনে শপথ নেওয়ার পর বারলা। (ছবি সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)

এবার কি কেন্দ্রে পৃথক উত্তরবঙ্গের সওয়াল? মন্ত্রিত্ব পেয়ে জানালেন জন বারলা

রাজ্যে তৃণমূল তৃতীয়বার ক্ষমতায় আসার কিছুদিন পর আলিপুরদুয়ারের সাংসদ আচমকাই উত্তরবঙ্গ নিয়ে পৃথক রাজ্য গড়ার দাবি তোলেন। সেই দাবিকে সমর্থন করেন বিজেপির কিছু বিধায়কও।

‌কিছুদিন আগেই পৃথক উত্তরবঙ্গ রাজ্য বা কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের দাবিতে সোচ্চার হয়েছিলেন। কিন্তু মন্ত্রী হওয়ার পর অনেকটাই সুর নরম আলিপুরদুয়ারের সাংসদ জন বারলার। তাঁর পুরনো দাবি প্রসঙ্গে জিজ্ঞাসা করা হলে সাংসদ জানান, এই মুহূর্তে তিনি কোনও বিতর্ক তৈরি করতে চান না। রাজ্য ও কেন্দ্র মানুষের জন্য একসঙ্গে কাজ করবে, এটাই চাইব। উল্লেখ্য, গতকালই কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার রদবদল হয়। সেখানে কেন্দ্রীয় সংখ্যালঘু মন্ত্রকের রাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্ব পান জন বারলা।

আলিপুরদুয়ারের সাংসদ মন্ত্রী হওয়ার পর সুর নরম হওয়া প্রসঙ্গে ওয়াকিবহাল মহলের ধারণা, সুযোগ বুঝেই এই ধরনের বক্তব্য রেখেছিলেন জন বারলা। যদিও এই নিয়ে রাজনীতির পারদ চড়তে শুরু করেছে। এই প্রসঙ্গে তৃণমূল মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানান, বিজেপি একটি অদ্ভুত রাজনৈতিক দল। তাঁরা এমন একজনকে উত্তরবঙ্গ থেকে মন্ত্রী করেছেন যিনি বাংলাকে ভাগ করতে চাইছেন। সুর চড়িয়েছেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীররঞ্জন চৌধুরীও। তিনি জানান, উত্তরবঙ্গকে আলাদা রাজ্য করার আওয়াজ তুলে আগামিদিনে ভোটের বাজারে প্রভাব বিস্তার করার চেষ্টা করবে বিজেপি। উত্তরবঙ্গ নিয়ে বিভাজনের রাজনীতি করলে বাংলার মানুষ বিজেপিকে সমূলে উৎখাত করবে। একইসঙ্গে জন বারলাকে মন্ত্রী করা নিয়ে অধীররঞ্জন চৌধুরী জানান, যেহেতু উত্তরবঙ্গে ভালো ফল করেছে বিজেপি, তাই ওই এলাকাগুলিতে নিজেদের আধিপত্য ধরে রাখতে উত্তরবঙ্গ থেকেই একজনকে মন্ত্রী করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

রাজনৈতিক মহলের ধারনা, এমন একটা রাজনৈতিক মতবাদ উঠে আসতে পারে সেটা আভাস করেই রাজ্য বিজেপি অনেক আগে থেকে জন বারলাকে মুখ বন্ধ রাখার জন্য বুঝিয়ে আসছিল। শেষ পর্যন্ত তিনি মন্ত্রী হওয়ার পর অনেকটাই সুর নরম হয়েছে তাঁর। উল্লেখ্য, রাজ্যে তৃণমূল তৃতীয়বার ক্ষমতায় আসার কিছুদিন পর আলিপুরদুয়ারের সাংসদ আচমকাই উত্তরবঙ্গ নিয়ে পৃথক রাজ্য গড়ার দাবি তোলেন। সেই দাবিকে সমর্থন করেন বিজেপির কিছু বিধায়কও।

এদিকে মন্ত্রীর সুর নরম হলেও সম্প্রতি নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন কামতাপুর লিবারেশন অর্গানাইজেশনের চেয়ারম্যান জীবন সিংয়ের গোপন ডেরাতে করা একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে।ভিডিও বার্তায় উত্তরবঙ্গকে আলাদা রাজ্য চেয়ে সশস্ত্র সংগ্রামের ডাক দিয়েছেন তিনি। পুলিশের কাছেও এই খবর গিয়ে পৌঁছেছে। তবে রাজ্য পুলিশের আইজি নর্থ বেঙ্গল দেবেন্দ্র কুমার সিং জানিয়েছেন, যাঁরা এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত তাঁদের চিহ্নিত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বন্ধ করুন