বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > তুঙ্গে বিয়ের প্রস্তুতি, শেষ মুহূর্তে নাবালিকার বিয়ে রুখলেন জয়েন্ট বিডিও
নাবালিকার বিয়ে রুখলেন জয়েন্ট বিডিও। প্রতীকী ছবি সৌজন্যে ফেসবুক।

তুঙ্গে বিয়ের প্রস্তুতি, শেষ মুহূর্তে নাবালিকার বিয়ে রুখলেন জয়েন্ট বিডিও

  • ঘটনাটি কোচবিহারের অন্দরানফুলবারি ১ গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার মণীন্দ্রনগর কলোনির।

বাড়িতে ঘটা করে চলছে বিয়ের আয়োজন। প্রস্তুতি একেবারে শেষ পর্যায়ে। কিন্তু, এখনও সাবালিকা হয়ে ওঠেনি কনে। নিয়ম অনুযায়ী, নাবালিকার বিয়ে অবৈধ। তাই খবর পাওয়া মাত্রই তৎপরতার সঙ্গে নাবালিকার বিয়ে রুখল স্থানীয় প্রশাসন। ঘটনাটি কোচবিহারের অন্দরানফুলবারি ১ গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার মণীন্দ্রনগর কলোনির। চাইল্ড লাইন হেল্পলাইন থেকে ফোন আসা মাত্রই জয়েন্ট বিডিও বিয়ে বাড়িতে হাজির হয় নাবালিকার বিয়ে বন্ধ করে দেন।

পুলিশ সূত্রে জানা যাচ্ছে, নাবালিকাকে উদ্ধার করে হোমে পাঠানো হয়েছে। পাশাপাশি, তার পরিবারের লোকেদের থানায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। চাইল্ড লাইন হেল্পলাইন থেকে নাবালিকার বিয়ের খবর জানার পরেই স্থানীয় জয়েন্ট বিডিও ঘটনাস্থলে গেলে কনেকে সাবালিকা বলে দাবি করেন পরিবারের লোকেরা। এরপর কনের জন্ম সার্টিফিকেট সহ অন্যান্য শংসাপত্র খতিয়ে দেখে জয়েন্ট বিডিও জানতে পারেন কনের বয়স মাত্র ১৬ বছর। বিয়ের উপযুক্ত বয়স তার এখনও হয়নি।

অন্যদিকে, বিয়ের জন্য সমস্ত রকমের প্রস্তুতি সেরে ফেলেছেন তার পরিবারের লোকেরা। প্যান্ডেল তৈরির কাজ সম্পন্ন হয়ে গেছে। শনিবার দুপুরে কনের গায়ে হলুদ পড়ার কথা ছিল। কিন্তু, কনে নাবালিকা হাওয়ায় সেই বিয়ে বন্ধ করেছে স্থানীয় প্রশাসন।

প্রসঙ্গত, নাবালিকার বিয়ে অবৈধ হলেও রাজ্যে বিভিন্ন প্রান্তে এভাবে নাবালিকাদের বিয়ে দিয়ে দিচ্ছেন তাদের পরিবার। সম্প্রতি সমীক্ষায় জানা গিয়েছে, দীর্ঘদিন স্কুল বন্ধ থাকার ফলে স্কুলছুটদের সংখ্যা বেড়েছে। অনেক ছাত্র যেমন স্কুল ছেড়ে রুটি-রুজির তাগিদে ভিন রাজ্যে পাড়ি দিচ্ছে, তেমনই অনেক ছাত্রীর পড়াশোনা ছড়িয়ে নাবালিকা থাকা সত্ত্বেও তাদের বিয়ে দিয়ে দিচ্ছেন অভিভাবকরা।

বন্ধ করুন