বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > মাস্ক বা টিকার ২ ডোজেও নয় ছাড়, কালী ও জগদ্ধাত্রী পুজোর মণ্ডপেও ‘নো এন্ট্রি’
কালীপুজোয় মণ্ডপে থাকবে ‘নো এন্ট্রি’, নির্দেশ হাইকোর্টের। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
কালীপুজোয় মণ্ডপে থাকবে ‘নো এন্ট্রি’, নির্দেশ হাইকোর্টের। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)

মাস্ক বা টিকার ২ ডোজেও নয় ছাড়, কালী ও জগদ্ধাত্রী পুজোর মণ্ডপেও ‘নো এন্ট্রি’

  • দুর্গাপুজোয় বিধিনিষেধের তোয়াক্কা করা হয়নি।

করোনাভাইরাস টিকার দুটি ডোজ নেওয়া নিয়েছেন? বা মাস্ক পরে আছেন? তাতেও কোনও লাভ হবে না। কালীপুজো এবং জগদ্ধাত্রী পুজোর মণ্ডপে প্রবেশের অনুমতি দিল না কলকাতা হাইকোর্ট। সেইসঙ্গে কড়াভাবে কালীপুজো এবং জগদ্ধাত্রী পুজোয় ভিড় নিয়ন্ত্রণের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এমনিতে এবার দুর্গাপুজোতেও দর্শনার্থীদের মণ্ডপে প্রবেশের উপর নিষেধাজ্ঞা ছিল। শুধুমাত্র পুজো কমিটির সদস্যদের মণ্ডপে প্রবেশে অনুমতি দেওয়া হয়েছিল। তবে বেঁধে দেওয়া হয়েছিল সর্বোচ্চসীমা। সেইসঙ্গে করোনা টিকার দুটি ডোজ নেওয়া থাকলে অঞ্জলি, সিঁদুর খেলা-সহ দুর্গাপুজোর যে কোনও কাজে অংশগ্রহণ করার ছাড় দেওয়া হয়েছিল। তবে অনেকেই বিধিনিষেধের তোয়াক্কা করা হয়নি। রাস্তায় মানুষের ঢল নেমেছিল। সামাজিক দূরত্ববিধি তো কার্যত মানা হয়নি। তা নিয়ে সম্প্রতি ক্ষোভও প্রকাশ করেছিল হাইকোর্ট। 

গত সোমবার একটি আবেদনের শুনানিতে রীতিমতো অসন্তোষ প্রকাশ করেছে বিচারপতি শিবকান্ত প্রসাদ এবং বিচারপতি আনন্দ কুমারের অবকাশকালীন বেঞ্চ। বিরক্তি প্রকাশ করে বিচারপতি শিবকান্ত প্রসাদ জানান, দুর্গাপুজোয় ভালোমতো ভিড় হয়েছে। আদালতে নির্দেশ মেনে চলার প্রয়োজন আছে বলে কেউ মনে করেননি। ভিড় নিয়ন্ত্রণও ঠিকভাবে করা হয়নি।

উল্লেখ্য, দুর্গাপুজোর সময় মানুষের অসচেনতার মাশুল গুনতে হচ্ছে রাজ্যকে। যে দৈনিক সংক্রমণ একটা সময় অনেকটা নেমে গিয়েছিল, তা আবারও ১,০০০-এর কাছে পৌঁছে গিয়েছে। টানা কয়েকদিন দৈনিক সংক্রমণ ৯০০-র উপরে আছে। বিশেষত উদ্বেগ বাড়িয়েছে কলকাতা এবং উত্তর ২৪ পরগনা। পশ্চিমবঙ্গের স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিন অনুযায়ী, মঙ্গলবার সকাল ন'টা পর্যন্ত রাজ্যে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৫,৯৪,৪৯৫। শেষ ২৪ ঘণ্টায় ৮৬২ জন আক্রান্তের হদিশ মিলেছে। জেলাভিত্তিক সংক্রমণের শীর্ষে আছে কলকাতা (২৪৯), উত্তর ২৪ পরগনা (১৩৫) এবং দক্ষিণ ২৪ পরগনা (৮৮)। এমনকী কলকাতার পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে রাজ্য সরকারকে চিঠি পাঠিয়েছে কেন্দ্র।

বন্ধ করুন