বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > খড়দায় অধ্যাপকের খাটের তলায় পাওয়া গেল ৩২ লক্ষ

খড়দায় অধ্যাপকের খাটের তলায় পাওয়া গেল ৩২ লক্ষ

টাকা উদ্ধার করে বেরোচ্ছেন পুলিশকর্মীরা।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, প্রায় আড়াই বছর ওই ফ্ল্যাটে থাকেন অমিতাভবাবু। সঙ্গে থাকেন স্ত্রী ও একমাত্র সন্তান। কখনও সন্দেহজনক কিছু চোখে পড়েনি। অধ্যাপক বলে এলাকার মানুষ সম্ভ্রমের চোখে দেখতেন।

গোপন সূত্রে খবর পেয়ে তল্লাশি চালিয়ে অধ্যাপকের বাড়ি থেকে ৩২ লক্ষ টাকা উদ্ধার করল পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাত থেকে লাগাতার তল্লাশিতে এই টাকা উদ্ধার হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। ঘটনা খড়দা থানার নাথুপাল ঘাট রোডের। এই ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

বারাকপুর কমিশনারেট সূত্রে জানা গিয়েছে, নাথুপাল ঘাট রোডের ওই ফ্ল্যাটে প্রচুর নগদ রয়েছে বলে গোয়েন্দা সূত্রে খবর পাওয়া যায়। নাথুপাল ঘাট রোডের শিরোমণি আবাসনের একতলার ওই ফ্ল্যাটে সপরিবারে থাকেন অমিতাভ দাস নামে এক অধ্যাপক। বৃহস্পতিবার রাতে সেখানে পৌঁছন পুলিশ আধিকারিকরা। প্রাথমিকভাবে কিছু আঁচ করতে পারেননি স্থানীয় বাসিন্দারা। সকালে জানা যায় ওই ফ্ল্যাট থেকে ৩২ লক্ষ টাকা উদ্ধার হয়েছে। অমিতাভবাবুকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, প্রায় আড়াই বছর ওই ফ্ল্যাটে থাকেন অমিতাভবাবু। সঙ্গে থাকেন স্ত্রী ও একমাত্র সন্তান। কখনও সন্দেহজনক কিছু চোখে পড়েনি। অধ্যাপক বলে এলাকার মানুষ সম্ভ্রমের চোখে দেখতেন। তাঁর ফ্ল্যাটে বিপুল নগদ এল কোথা থেকে সেকথা ভেবে হতবাক তারা।

তবে পুলিশ সূত্রে খবর, যে বেসরকারি কলেজে অমিতাভবাবু অধ্যাপনা করেন সেখানে ছাত্রভর্তির কমিশনের টাকা রাখা ছিল তাঁর ফ্ল্যাটে। এই টাকার আসল মালিক কে? কেন টাকা নগদে রাখা হয়েছিল তা খতিয়ে দেখছেন গোয়েন্দারা।

 

বন্ধ করুন