বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > 'দুর্নীতিগ্রস্ত পঞ্চায়েত কর্মীদের আড়ালে পুলিশ ক্যাম্প', সরানোর দাবিতে বিক্ষোভ ভাঙড়ে
'দুর্নীতিগ্রস্ত পঞ্চায়েত কর্মীদের আড়ালে পুলিশ ক্যাম্প', সরানোর দাবিতে বিক্ষোভ ভাঙড়ে। 
'দুর্নীতিগ্রস্ত পঞ্চায়েত কর্মীদের আড়ালে পুলিশ ক্যাম্প', সরানোর দাবিতে বিক্ষোভ ভাঙড়ে। 

'দুর্নীতিগ্রস্ত পঞ্চায়েত কর্মীদের আড়ালে পুলিশ ক্যাম্প', সরানোর দাবিতে বিক্ষোভ ভাঙড়ে

তাদের অভিযোগ, দুর্নীতিগ্রস্ত পঞ্চায়েত কর্মী এবং সদস্যদের আড়াল করতেই পুলিশ ক্যাম্প করা হয়েছে। এদিন প্রায় দু ঘণ্টা ধরে চলে এই বিক্ষোভ কর্মসূচি।

পুলিশ ক্যাম্প সরানোর দাবিতে এবার পঞ্চায়েত অফিসের সামনে বিক্ষোভে সামিল হল জমি, জীবিকা, বাস্তুতন্ত্র ও পরিবেশ রক্ষা কমিটি। কমিটির সদস্যদের দাবি, ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে পুলিশ ক্যাম্প সরাতে হবে। না হলে আরও বৃহত্তর আন্দোলনে যাবেন তাঁরা।

চলতি মাসেই ভাঙড়ের পাওয়ার গ্রিড সংলগ্ন পোলেরহাট ২ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতে ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। অভিযোগ, আরাবুল ইসলামের ছেলে হাকিমুল ইসলামকে বেধড়ক মারধর করা হয়। এরসঙ্গে পঞ্চায়েতের সরকারি কর্মচারীদের ব্যাপক মারধর করা হয়। সেই ঘটনায় নাম জড়ায় জমি, জীবিকা, বাস্তুতন্ত্র, পরিবেশ রক্ষা কমিটির। ভাঙড় ২ ব্লকের মোট দশটি পঞ্চায়েতের সরকারি কর্মচারীরা বিডিও অফিসে তাদের নিরাপত্তার দাবিতে ডেপুটেশন দেয়। সেই ডেপুটেশনের পর ব্লক আধিকারিক ও পুলিশ আধিকারিকরা সিদ্ধান্ত নেয়, পোলেরহাট দু'নম্বর পঞ্চায়েতে পুলিশ ক্যাম্প করা হবে। সেইমতো পঞ্চায়েতের ভিতরে পুলিশ ক্যাম্প করা হয়েছে। তাদের অভিযোগ, দুর্নীতিগ্রস্ত পঞ্চায়েত কর্মী এবং সদস্যদের আড়াল করতেই পুলিশ ক্যাম্প করা হয়েছে। প্রায় দু'ঘণ্টা ধরে চলে এই বিক্ষোভ কর্মসূচি।

পঞ্চায়েতে পুলিশ ক্যাম্প হলে সাধারণ মানুষ সমস্যায় পড়বে বলেও দাবি করেন কমিটির যুগ্ম সম্পাদক মির্জা হাসান। কমিটির সদস্যদের মতে, অনেকদিন ধরেই এই বিক্ষোভ কর্মসূচি চলছে। এলাকার পঞ্চায়েত আধিকারিকদের দুর্নীতির বিরুদ্ধে কথা বলা যাবে না। সেটা বলতে গেলেই প্রশাসন দিয়ে পুলিশ বসিয়ে সাধারণ মানুষের কণ্ঠরোধ চলছে।

বন্ধ করুন