বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > সংরক্ষিত বনাঞ্চলে বসছে মদের আসর, বাগডোগরা নিয়ে চিন্তিত বন দফতর
মদের আসর বসানো হচ্ছে।
মদের আসর বসানো হচ্ছে।

সংরক্ষিত বনাঞ্চলে বসছে মদের আসর, বাগডোগরা নিয়ে চিন্তিত বন দফতর

  • পরিবেশপ্রেমীদের অভিযোগ, বনাঞ্চলের ভিতরে টিপু খোলা পিকনিক স্পটে একাধিক মদের ঠেক গজিয়ে উঠেছে। এলাকার যুবক–যুবতীরা এখানে জমায়েত করছে। চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে বিদেশি মদ। মদ খেয়ে মদের বোতল ফেলে আসছে।

বাগডোগরা সংরক্ষিত বনাঞ্চলের ভিতরে রাতে বসছে মদের আসর বলে অভিযোগ। এমনকী বনে ঢুকে অবাধে বন্য জীবজন্তুর ছবি তোলা হচ্ছে বলেও অভিযোগ উঠেছে। এই ঘটনা নিয়ে সরব হয়েছেন পরিবেশপ্রেমীরা। তাই তাঁরা বন দফতরকে দ্রুত পদক্ষেপ করার দাবি জানিয়েছেন। এই বিষয়ে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন বন কর্তৃপক্ষ।

ঠিক কী ঘটেছে বাগডোগরায়? স্থানীয় সূত্রে খবর,‌ বাগডোগরায় রয়েছে বনাঞ্চল। তার ভিতরে রয়েছে জঙ্গলি বাবা মন্দির, টিপু খোলা পিকনিক স্পট। বন দফতরের নিষেধাজ্ঞা থাকলেও মানুষ সেখানে অবাধে প্রবেশ করছেন। অনুমতি ছাড়া বন্যপ্রাণীর ছবি তুলছেন। এমনকী মদের আসর বসানো হচ্ছে। নেশাগ্রস্ত যুবকরা বনাঞ্চলের রাস্তায় দ্রুতগতিতে মোটরবাইক এবং গাড়ি নিয়ে ছুটছে। প্রত্যেক শনিবার এবং রবিবার রাত ৯টা পর্যন্ত সেন্ট্রাল বস্তির টিপুখোলা সংলগ্ন এলাকায় মদের আসর চলে। বনাঞ্চলে প্রবেশ করছে অনেকে।

পরিবেশপ্রেমীদের অভিযোগ ঠিক কী?‌ পরিবেশপ্রেমীদের অভিযোগ, বনাঞ্চলের ভিতরে টিপু খোলা পিকনিক স্পটে একাধিক মদের ঠেক গজিয়ে উঠেছে। এলাকার যুবক–যুবতীরা এখানে জমায়েত করছে। চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে বিদেশি মদ। মদ খেয়ে মদের বোতল ফেলে আসছে। বন্যপ্রাণী দেখলে তার কাছে গিয়ে ছবি তোলা হচ্ছে। এই নিয়ে বনদপ্তরকে কড়া পদক্ষেপ করতে হবে।

ঠিক কী বলছে বন দফতর?‌ এই বিষয়ে বনদফতরের বাগডোগরা রেঞ্জের রেঞ্জার সমীরণ রাজ বলেন, ‘‌দিনের বেলায় পিকনিক স্পট ছাড়া বনাঞ্চলের অন্য কোথাও প্রবেশের অনুমতি নেই। রাতে তো সব জায়গাতেই প্রবেশ নিষিদ্ধ। যদিও বন কর্মীরা রাত দিন টহল দেয়। তবে এই নিয়ে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’‌

বন্ধ করুন