বাড়ি > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > দায়সারা ভাবে করোনা রোগীর দেহ সৎকারের অভিযোগ, গ্রামবাসীদের পথ অবরোধ আরামবাগে
প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

দায়সারা ভাবে করোনা রোগীর দেহ সৎকারের অভিযোগ, গ্রামবাসীদের পথ অবরোধ আরামবাগে

  • গ্রামবাসীরা জানিয়েছেন, এই খবর এলাকায় ছড়াতেই আড়াই মাইলের বাসিন্দাদের কার্যত একঘরে করে দিয়েছেন আসেপাশের গ্রামের বাসিন্দারা।

করোনা রোগীর সৎকারে গাফিলতির জেরে মাটির নীচ থেকে দেহাংশ টেনে বার করে এলাকায় ঘুরে বেড়াচ্ছে কুকুর। এমনই চাঞ্চল্যকর অভিযোগ তুলে বৃহস্পতিবার রাত থেকে শুক্রবার বেলা আড়াইটে পর্যন্ত অবরোধ চালালেন গ্রামবাসীরা। ঘটনা আরামবাগের আড়াই মাইল এলাকার। প্রশাসনের আশ্বাসে অবশেষে অবরোধ ওঠে। ঘটনা খতিয়ে দেখার আশ্বাস দিয়েছেন জেলাশাসক।

আড়াই মাইল এলাকার বাসিন্দাদের অভিযোগ, সেখানে দ্বারকেশ্বর নদীর চরে করোনা রোগীদের মৃতদের সৎকার করছে প্রশাসন। কিন্তু কখনো অল্প গর্ত করে মৃতদেক পুঁতে দিয়ে কখনো পোট্রোল ঢেলে আধপোড়া দেহ ফেলে রেখে চলে যাচ্ছেন তাঁরা। আর সেই দেহ মুখে করে নিয়ে এলাকায় ঘুরে বেড়াচ্ছে কুকুর।

গ্রামবাসীরা জানিয়েছেন, এই খবর এলাকায় ছড়াতেই আড়াই মাইলের বাসিন্দাদের কার্যত একঘরে করে দিয়েছেন আসেপাশের গ্রামের বাসিন্দারা। ধোপা-নাপিত বন্ধ হয়ে গিয়েছে তাদের। মিলছে না ওষুধও। অসহায় অবস্থায় দিন কাটাচ্ছেন তাঁরা। 

বৃহস্পতিবার রাতেও একটি দেহ সৎকার করতে নিয়ে যান প্রশাসনের কর্মীরা। পুলিশ পাহারায় দেহ সৎকারের আয়োজন শুরু হতেই রে রে করে তেড়ে যান গ্রামবাসীরা। স্থানীয়দের মারমুখি রূপ দেখে গাড়ি রেখেই এলাকা ছেড়ে পালান পুলিশকর্মীরা। এর পর তারকেশ্বর – আরামবাগ রোড অবরোধ করেন গ্রামবাসীরা। সারা রাত চলে অবরোধ। 

সকালে বিডিওর তরফে জানানো হয়, মানুষের দেহাংশ বলে যা দাবি করা হচ্ছে তা আসলে পোড়া কাঠ। এর পর এলাকা জীবাণুমুক্ত করা হবে বলে আশ্বাস দেন বিডিও। তাতেও বরফ গলেনি। লাগাতার পথ অবরোধ করে বসে থাকেন স্থানীয়রা। বেলা ২টোর কিছু পরে জেলাশাসক ওয়াই রত্নাকর এব্যাপারে হস্তক্ষেপের আশ্বাস দিলে অবরোধ ওঠে। 

 

বন্ধ করুন