বাড়ি > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > করোনার দেহ সৎকারের গুজবে বিক্ষোভ মেদিনীপুরে, লাঠি চালাল পুলিশ
মেদিনীপুর থানা। ফাইল ছবি
মেদিনীপুর থানা। ফাইল ছবি

করোনার দেহ সৎকারের গুজবে বিক্ষোভ মেদিনীপুরে, লাঠি চালাল পুলিশ

  • তাদের দাবি, করোনায় মৃতদের দেহ কবর দেওয়া যাবে না সেখানে। পুলিশের পালটা দাবি, দেহগুলি করোনায় মৃতদের নয়।

মৃতদেহ সৎকার নিয়ে গভীর রাতে উত্তেজনা মেদিনীপুর শহরের তাঁতিগেড়িয়া কবরস্থান এলাকায়। করোনায় মৃতদের দেহ কবর দেওয়া হচ্ছে এই অভিযোগে পুলিশকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখাতে থাকে স্থানীয়রা। শেষে পুলিশকে হালকা লাঠি চার্জ করতে হয়। বিক্ষোভকারীদের ১ জনকে পুলিশ তুলে নিয়ে গিয়েছে বলে দাবি বাসিন্দাদের।

ঘটনার সূত্রবার বুধবার গভীর রাতে। মেদিনীপুর শহরের তাঁতিগেড়িয়া কবরস্থানে কতগুলি দেহ সৎকার করতে নিয়ে যায় পুলিশ। মেদিনীপুর পুরসভার জেসিবি মেশিন দিয়ে শুরু হয় গর্ত খোড়ার কাজ। এরই মধ্যে করোনার দেহ কবর দেওয়া হচ্ছে বলে গুজব রটে এলাকায়। সেই গুজবের জেরে সেখানে এসে পুলিশকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন স্থানীয়রা। 

তাদের দাবি, করোনায় মৃতদের দেহ কবর দেওয়া যাবে না সেখানে। পুলিশের পালটা দাবি, দেহগুলি করোনায় মৃতদের নয়। তবে তাতেও মানেননি স্থানীয় মানুষজন। এর পর বিক্ষোভকারীদের হঠাতে হালকা লাঠি চালায় কোতয়ালি থানার পুলিশ। তার পর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। 

ঘটনাস্থল থেকে স্থানীয় এক বাসিন্দাকে তুলে নিয়ে যায় পুলিশ। এর প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে কোতয়ালি থানার সামনে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন তাঁতিগেড়িয়ার মানুষজন। পুলিশের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, কবরস্থানে সৎকারে বাধা দেওয়া হবে না লিখিত দিলে তবেই ছাড়া হবে ওই ব্যক্তিকে। 

প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে, তাঁতিগেড়িয়া কবরস্থানটি পুরসভার হলেও তাতে কোনও পাঁচিল নেই। স্থানীয়রা ওই কবরস্থানের ভিতর দিয়ে যাতায়াত করেন। তাই তাঁরা পাঁচিল দেওয়ার বিরোধী। ফলে সংক্রমণ ছড়ানোর সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। এখন কবরস্থান পাঁচিল দিয়ে ঘেরার দাবিতে সরব হয়েছে এলাকাবাসী। 

 

বন্ধ করুন