বাড়ি > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > রাতের অন্ধকারে করোনা রোগীর দেহ সৎকারের চেষ্টা, বাধা পেয়ে লাঠি চালাল পুলিশ
প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

রাতের অন্ধকারে করোনা রোগীর দেহ সৎকারের চেষ্টা, বাধা পেয়ে লাঠি চালাল পুলিশ

  • এতে ক্ষোভে ফেটে পড়ে স্থানীয় মানুষ। তাদের দাবি, করোনা রোগীর দেহ গ্রামের কাছে সৎকার করা হলে গ্রামে সংক্রমণ ছড়াতে পারে। দেহ সৎকার করা যাবে না এই দাবিতে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন তাঁরা।

করোনা রোগীর দেহ সৎকার নিয়ে ফের একবার পুলিশ জনতা খণ্ডযুদ্ধ হল পশ্চিমবঙ্গে। বুধবার রাতে বাঁকুড়ার জয়পুরে করোনায় মৃত ব্যক্তির দেহ সৎকারে বাধা দেন স্থানীয়রা। পালটা পুলিশ বলপ্রয়োগ করলে প্রবল উত্তেজনা ছড়ায় এলাকায়। সারা রাত চলে পথ অবরোধ। 

বাঁকুড়া জেলা প্রশাসন সূত্রের খবর, বুধবার সন্ধ্যায় বাঁকুড়ার ওন্দা করোনা হাসপাতালে মৃত্যু হয় এক ব্যক্তির। তার দেহ সৎকারের জন্য নিয়ে যাওয়া জয়পুরের ফাঁকা মাঠে। গভীর রাতে দেহ সৎকারের আয়োজন করেন প্রশাসনের কর্মীরা। কিন্তু পুলিশের গতিবিধি দেখে সন্দেহ হয় স্থানীয়দের। তাঁরা গিয়ে দেখেন, জঙ্গলের মধ্যে করোনা রোগীর দেহ সৎকারের আয়োজন চলছে।

এতে ক্ষোভে ফেটে পড়ে স্থানীয় মানুষ। তাদের দাবি, করোনা রোগীর দেহ গ্রামের কাছে সৎকার করা হলে গ্রামে সংক্রমণ ছড়াতে পারে। দেহ সৎকার করা যাবে না এই দাবিতে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন তাঁরা। 

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় আরও পুলিশকর্মী। অভিযোগ, তখন পুলিশকর্মীদের লক্ষ্য করে ইট ছোডে়ন গ্রামবাসীরা। পালটা লাঠি চালায় পুলিশ। ইটের ঘাটে কয়েকজন পুলিশকর্মী আহত হয়েছেন। এর পর গোটা রাত পথ অবরোধ করে বসে থাকেন গ্রামবাসীরা। 

প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে, গুজবের জেরে উত্তেজনা ছড়ায়। গ্রামের থেকে নিরাপদ দূরত্বেই করোনা রোগীর দেহ সৎকার করা হচ্ছিল। আতঙ্কিত হয়ে তাতে বাধা দেন স্থানীয়রা। 

 

বন্ধ করুন