প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

করোনার আইসোলেশন ওয়ার্ড তৈরি হওয়ায় চাঁচলে নার্সিংহোমে ভাঙচুর

  • স্থানীয়দের দাবি, ঘনবসতিপূর্ণ ওই এলাকায় করোনা চিকিৎসাকেন্দ্র হলে সংক্রমণের শঙ্কা রয়েছে। সেখানে করোনা চিকিৎসাকেন্দ্র করার আগে কথা বলা হয়নি স্থানীয়দের সঙ্গে।

এলাকায় তৈরি করা যাবে না করোনা রোগীদের চিকিৎসাকেন্দ্র, এই দাবিতে রবিবার বিকেলে মালদার চাঁচলে একটি নার্সিংহোম ভাঙচুর করল স্থানীয়রা। তাঁদের দাবি, ঘনবসতিপূর্ণ ওই এলাকায় করোনা চিকিৎসা কেন্দ্র হলে সংক্রমণ ছড়াতে পারে।

করোনা মোকাবিলায় পশ্চিমবঙ্গের প্রায় প্রত্যেক জেলায় বেসরকারি নার্সিংহোম সাময়িক অধিগ্রহণ করে সেখানে চিকিৎসার ব্যবস্থা করছে রাজ্য সরকার। সেই প্রকল্পের অধীনেই মালদার চাঁচলের দিশারী নার্সিংহোমকে করোনা চিকিৎসাকেন্দ্র হিসাবে গড়ে তোলার সিদ্ধান্ত হয়। যাতে বিরোধের মুখে পড়তে হল প্রশাসনকে।

স্থানীয়দের দাবি, ঘনবসতিপূর্ণ ওই এলাকায় করোনা চিকিৎসাকেন্দ্র হলে সংক্রমণের শঙ্কা রয়েছে। সেখানে করোনা চিকিৎসাকেন্দ্র করার আগে কথা বলা হয়নি স্থানীয়দের সঙ্গে। এই অভিযোগে রবিবার দুপুর থেকে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন স্থানীয়রা। বিক্ষোভ শুরু হতেই নার্সিংহোমের সমস্ত দরজা বন্ধ করে দেয় কর্তৃপক্ষ। শুরু হয় মালদা – চাঁচল রাজ্য সড়ক অবরোধ। বিকেলে বিক্ষোভ হিংসাত্মক চেহারা নেয়। শুরু হয় ভাঙচুর। রাস্তায় আগুন জ্বালিয়ে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন স্থানীয়রা।

ঘটনার খবর প্রশাসনের কানে পৌঁছলে পৌঁছয় পুলিশ। বিক্ষোভকারীদের এলাকা থেকে সরিয়ে দেয় তারা। জেলা প্রশাসনের তরফে গ্রামবাসীদের সঙ্গে আলোচনার আশ্বাস দিয়ে জানানো হয়েছে, ঘটনাটি দুর্ভাগ্যজনক।

বন্ধ করুন