ক্ষোভ প্রকাশ মমতার (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)
ক্ষোভ প্রকাশ মমতার (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)

Lockdown 2.0: 'কেউ কেউ ভাবেন রেশনের চাল তাঁর নিজের, এটা ভাবার কারণ নেই', ক্ষোভ প্রকাশ মমতার

  • খাদ্যসচিবকে অপসারণ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

লকডাউনের শুরু থেকেই রেশন বিলি নিয়ে নানা অনিয়মের অভিযোগ উঠেছিল। তা নিয়ে সরব ছিলেন বিরোধীরা। এবার ক্ষোভ প্রকাশ করলেন খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আরও পড়ুন : COVID-19 Updates: রাজ্যকে করোনা আক্রান্ত-মৃতের সংখ্যা জানানোর নির্দেশ হাইকোর্টের : আবেদনকারী হালিম

বৃহস্পতিবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে রেশন বিলির বিষয়টি নিয়ে দীর্ঘক্ষণ আলোচনা হয়। সূত্রের খবর, সেখানে বিভিন্ন জেলার থেকে আসা অভিযোগের জন্য মমতার ক্ষোভের মুখে পড়েন খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। দ্রুত সমস্যা সমাধানেরও নির্দেশ দেন। পাশাপাশি, খাদ্যসচিব মনোজ আগরওয়ালের কাজেও খুশি নেন বলে জানিয়ে দেন মুখ্যমন্ত্রী।

আরও পড়ুন : লকডাউন ভাঙায় একদিনে কলকাতায় গ্রেফতার ৯০০

তারপর করোনা সংক্রান্ত সাংবাদিক বৈঠকে আরও একবার নিজের ক্ষোভ উগরে দেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, 'কোথাও কোথাও মাসের পাঁচ কেজি চাল দেওয়া হয়েছে। কোথাও কোথাও ছোটো রেশন দোকানের কারণে সামগ্রী রাখার জায়গা নেই। এটা নিয়ে কোর্টের একটা রায় আছে। সেটাকে তো পালটানো যাবে না। ৯০ শতাংশ মানুষকে এক মাসের চাল দিয়ে দেওয়া হলেও কিছু কিছু মানুষকে জায়গার অভাবে দেওয়া যায়নি। সেজন্য খাদ্য দফতরকে বলেছি, আশেপাশের জায়গার বন্দোবস্ত করে বা পুলিশকে বলে যাতে একমাসের রেশনটা একসঙ্গে দিয়ে দেওয়া হয়, যেখানে যেখানে দেওয়া হয়নি। যাঁরা অর্ধেক পেয়েছেন। তাঁরা আগামীদিনে বাকি অর্ধেক পাবেন। এটা সরকারের সিদ্ধান্ত।'

আরও পড়ুন : তিন বিজেপি সাংসদকে ত্রাণ বিলি করতে বাধা পুলিশের, অমিত শাহকে জানালেন জন বারলা

সবাই নিজের প্রাপ্য মতোই রেশন পাবেন বলে জানান মমতা। তাঁর আশ্বাস, 'রেশন দোকান নিয়ে চিন্তার কোনও কারণ নেই। কেউ কেউ একটু বেশি বেশি বলছেন।' যদিও রেশনের অনিয়মকারীদের কড়া ভাষায় হুঁশিয়ারি দেন মমতা। বলেন, 'কেউ কেউ চেষ্টা করছেন (পড়ুন ভাবছেন), রেশন দোকানের চালটা তাঁর নিজের চাল। এটা ভাবার কোনও কারণ নেই। সরকার চাল কেনে চাষিদের থেকে।'

আরও পড়ুন : Covid-19 Updates: 'কেউ অসুস্থ, কারোর উপসর্গ আছে', বেলগাছিয়া বস্তিতে শুরু তথ্য সংগ্রহের কাজ

পরে খাদ্যসচিবের উপর দৃশ্যতই ক্ষুব্ধ মমতা বলেন, 'খাদ্য দফতরের নতুন সচিব নিযুক্ত করছি। যেহেতু এই বিষয়টা বারবার বলা সত্ত্বেও ১০ শতাংশ লোক অর্ধেক পেয়েছেন। কেন অর্ধেক পাবেন? কেন অর্ধেক পায়নি? সেজন্য আজ আমরা নতুন সচিব নিয়োগ করছি। আমরা পাঁচ কেজি দেব বলেছি, পাঁচ কেজি দেব।' তবে এখনও নয়া সচিবের নাম ঘোষণা করেনি নবান্ন।

আরও পড়ুন : নিরাপত্তায় ফাঁকফোকর, Zoom app ব্যবহার করতে মানা করল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক

করোনাভাইরাস পরিস্থিতির সময় বিরোধীদের বিরুদ্ধে অহেতুক রাজনীতি করার অভিযোগ তোলেন মমতা। তিনি বলেন, 'ছ'মাস বিনামূল্যে রেশন দেব বলেছি। এটা বলে দিয়েছি। এটা সরকারের সিদ্ধান্ত। কোনও রাজনৈতিক দলের এটা নিয়ে জলঘোলা করার প্রয়োজন নেই। জলঘোলা করলে আমরা মানব না। মানুষ বিপদে পড়লে কি আমরা জলঘোলা করি? আমরা যদি না করি, তাহলে অন্যরা কেন করবে? একই জিনিস যদি সবার ক্ষেত্রে হয়, তাহলে ভালো হবে। সরকার নিজের সাধ্যমতো চেষ্টা করছে যাতে মানুষের পাশে থাকা যায়।'

বন্ধ করুন