থানেতে আটকে পরিযায়ী শ্রমিকরা (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
থানেতে আটকে পরিযায়ী শ্রমিকরা (ছবি সৌজন্য পিটিআই)

Lockdown 2.0: কীভাবে পাবেন ‘স্নেহের পরশ’, দেখে নিন আবেদনের প্রক্রিয়া ও কী কী নথি লাগবে

  • কী কী শর্তে মিলবে 'স্নেহের পরশ', কীভাবে সেই টাকা মিলবে, জেনে নিন বিস্তারিত।

লকডাউনের জেরে আটকে ভিনরাজ্যে আটকে রয়েছেন বাংলার অসংখ্য পরিযায়ী শ্রমিক। চরম দুর্ভোগের মুখে পড়েছেন। তাঁদের সাহায্যে এগিয়ে এসেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আরও পড়ুন :Post Office RD Rules: দেরিতে মাসিক টাকা জমা দিলে জরিমানা নয়

সম্প্রতি 'স্নেহের পরশ' নামে একটি প্রকল্পের একটি ঘোষণা করেছেন তিনি। সেই প্রকল্পের আওতায় ভিনরাজ্যে আটকে থাকা বাংলার পরিযায়ী শ্রমিকদের অ্যাকাউন্টে সরাসরি টাকা পাঠাবে রাজ্য। এককালীন ১,০০০ টাকা দেওয়া হবে শ্রমিকদের। রাজ্য জানিয়েছে, ২০ এপ্রিল থেকে আগামী ৩ মে পর্যন্ত এই প্রকল্প চলবে।

আরও পড়ুন : Lockdown 2.0: ভিনরাজ্যে বাড়ি ফেরা যাবে না, তবে পরিযায়ী শ্রমিকদের কাজের অনুমতি দিল কেন্দ্র

কারা প্রকল্পের সুযোগ পাবেন?

১) সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দা হতে হবে।

২) লকডাউনে বাংলার যে শ্রমিকরা নিজের রাজ্যে ফিরতে পারেননি, তাঁদের সাহায্য করা হবে।

আবেদনের প্রক্রিয়া :

'ওয়েস্ট বেঙ্গল স্নেহের পরশ' নামে একটি মোবাইল অ্যাপ লঞ্চ করেছে সরকার। গুগল প্লে স্টোর বা পশ্চিমবঙ্গ সরকারের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটের (www.wb.gov.in) হোম পেজে 'জয় বাংলা' লিঙ্ক থেকে অ্যাপটি ডাউনলোড করুন। তারপর সেখানে প্রয়োজনীয় তথ্য মিলবে।

কী কী নথি লাগবে?

১) পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দার প্রমাণ স্বরূপ খাদ্যসাথী কার্ড বা ভোটার কার্ড বা আধার কার্ডের নম্বর লাগবে।

২) নিজের ছবি।

৩) মোবাইল নম্বর।

৪) ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট নম্বর। এই অ্যাকাউন্টে টাকা পাঠানো হবে।

৫) রাজ্যে তাঁর কোনও প্রতিনিধির নাম, সম্পর্ক কী ও সংশ্লিষ্ট প্রতিনিধির মোবাইল নম্বর দিতে হবে।

কীভাবে টাকা পাবেন?

১) আপনি আবেদনের পর তা দেখতে পাবেন জেলাশাসক ও কলকাতা পুর কমিশনার।

২) প্রত্যেকের আবেদন দেখা হবে। তাতে সন্তুষ্ট হলে ও যোগ্যতা পূরণ হলে অনলাইনে অনুমোদন দেওয়া হবে।

৩) তারপর সংশ্লিষ্ট শ্রমিকের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে সরাসরি টাকা পাঠাবে রাজ্য।

৪) ব্যাঙ্কে টাকা ঢুকলে ফোনে মেসেজ পাবেন সংশ্লিষ্ট শ্রমিক। তারপর তিনি টাকা তুলতে পারবেন।

বন্ধ করুন