বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > বিজেপির দলীয় কার্যালয়ে কেন্দ্রীয় বিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য লটারির আয়োজন লকেটের
বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়। ফাইল ছবি

বিজেপির দলীয় কার্যালয়ে কেন্দ্রীয় বিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য লটারির আয়োজন লকেটের

  • যদিও এই অনুষ্ঠান করাকে কেন্দ্র করে প্রশ্ন তুলেছে তৃণমূল।

কেন্দ্রীয় বিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য দলীয় কার্যালয়ে লটারির আয়োজন করেছিলেন বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়। লকেটের এই অনুষ্ঠানকে ঘিরে প্রশ্ন তুলেছে তৃণমূল। তবে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে যাবতীয় বিতর্ক উড়িয়ে দিয়েছেন বিজেপি সাংসদ।

হুগলির ব্যান্ডেল স্টেশনের কাছে কেন্দ্রীয় বিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য সাংসদের কোটা রয়েছে ১০টি। এই ১০টি আসনে ভর্তির জন্য বিজেপির দলীয় কার্যালয়ে লটারির আয়োজন করেছিলেন বিজেপি সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়। সেই লটারির অনুষ্ঠানে সাংসদ নিজেও উপস্থিত ছিলেন। যদিও এই অনুষ্ঠান করাকে কেন্দ্র করে প্রশ্ন তুলেছে তৃণমূল। তৃণমূল বিধায়ক অসিত মজুমদার বিজেপি অফিসে লটারি অনুষ্ঠানের যৌক্তিকতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে জানিয়েছেন, ‘‌কেন্দ্রীয় বিদ্যালয়ে কে ভর্তি হবেন না হবেন, সেটা লকেট চট্টোপাধ্যায় বিজেপি অফিসে বসে ঠিক করছেন। লকেট চট্টোপাধ্যায় এমন একটা দলের সাংসদ যেই দল সংবিধান মানে না।’‌

যদিও তৃণমূল বিধায়কের এই মন্তব্য প্রসঙ্গে পাল্টা জবাব দিয়েছেন লকেট। এই প্রসঙ্গে তিনি জানান, ‘‌কেন্দ্রীয় বিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য সাংসদের কাছে ১০টি কোটা আছে। তবে এবার ৪০০ থেকে ৫০০ জন আবেদন করেছিলেন। সেই কারণেই এই লটারির আয়োজন করা হয়েছিল। আগেই আবেদনপত্র নেওয়া হয়েছিল। স্বচ্ছতার সঙ্গে বিচার হয়েছে। তৃণমূলের মতো চুরিচামারি করা হয় না।’‌ উল্লেখ্য, এমন একটা দিন বিজেপি সাংসদ এই লটারি অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিলেন, যেদিন হাই কোর্টের সিঙ্গল বেঞ্চ এসএসসির শিক্ষক নিয়োগ মামলায় প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে সিবিআই দফতরে হাজিরার নির্দেশ দিয়েছিল। যদি ডিভিশন বেঞ্চ তাতে স্থগিতাদেশ দেয়।

বন্ধ করুন