বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Digha: সৈকতে আছাড় খেলেন মদন মিত্র! গড়াগড়ির ভিডিয়ো দেখুন
সমুদ্র সৈকতে মদন মিত্র ও তাঁর নাতি। (ফেসবুক)
সমুদ্র সৈকতে মদন মিত্র ও তাঁর নাতি। (ফেসবুক)

Digha: সৈকতে আছাড় খেলেন মদন মিত্র! গড়াগড়ির ভিডিয়ো দেখুন

  • ত্রের খবর, মদন মিত্র বা তাঁর নাতির বড় কোনও চোট লাগেনি। এতেই স্বস্তি পেয়েছেন মদন অনুগামীরা। পাশাপাশি এই ঝড় বাদলার মধ্যে সমুদ্রের ধারে ছোট্ট নাতিকে নিয়ে যাওয়ার কী দরকার তা নিয়েও প্রশ্ন উঠছে। এই সময় স্বাভাবিকভাবেই সমুদ্র উত্তাল হতে পারে। সেক্ষেত্রে বড় বিপদ হয়ে যেতে পারত।

ইধার চলা ম্যায় উধার চলা, জানে কাহা ম্যায়…আচমকাই আছাড়। মদন মিত্রের এমনই একটা ভিডিয়ো ভাইরাল হয়েছে সম্প্রতি। দাবি করা হচ্ছে এটা নাকি দিঘার ভিডিয়ো। ভিডিয়োর উপর লেখা এপাং ওপাং ঝপাং। না জলে ঝপাং হননি। সমুদ্রের ধারে কংক্রিটের চাদরে অথবা পাথরে প্রপাত ধরণীতল। সেটাও আবার নাতির হাত ধরে। এই সেই ভিডিয়ো।

 

 

চোখে সানগ্লাস। পায়ে সাদা হাওয়াই চটি। একেবারে বেড়ানোর মুডে রয়েছেন মদন মিত্র। পেছনে উত্তাল সমুদ্র। পা টিপে টিপেই হয়তো যাচ্ছিলেন মদন মিত্র। কিন্তু আচমকাই। তবে এই ভিডিয়োর সত্যতা যাচাই করেনি হিন্দুস্তান টাইমস বাংলা। দাবি করা হচ্ছে অশনি আসছে বলে শোনা যাচ্ছিল। আর সেই সময়ে দিঘায় হাজির মদন মিত্র। নাতির হাত ধরে তিনি সমুদ্রের রূপ উপভোগ করছিলেন।

এদিকে মূলত বার বার সমুদ্রের জল আসায় পিছল ছিল কংক্রিট অথবা পাথর। সেখানেই পা পিছলে যায় তাঁর। তাঁর নাতিও পড়ে যায়। তবে তাঁর সঙ্গীরা দ্রুত তাঁকে ও নাতিকে তোলেন। এদিকে এই ভিডিয়ো দেখে কয়েকজন নেট নাগরিক স্বাভাবিকভাবেই উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। তবে সূত্রের খবর, মদন মিত্র বা তাঁর নাতির বড় কোনও চোট লাগেনি। এতেই স্বস্তি পেয়েছেন মদন অনুগামীরা। পাশাপাশি এই ঝড় বাদলার মধ্যে সমুদ্রের ধারে ছোট্ট নাতিকে নিয়ে যাওয়ার কী দরকার তা নিয়েও প্রশ্ন উঠছে। এই সময় স্বাভাবিকভাবেই সমুদ্র উত্তাল হতে পারে। সেক্ষেত্রে বড় বিপদ হয়ে যেতে পারত। বিধায়ক কি আরও একটু সতর্ক হতে পারতেন না? সেই প্রশ্নও উঠছে।

বন্ধ করুন