বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > আজই শেষ হবে দুর্গাপুর ব্যারাজের ভাঙা লকগেটের মেরামতি
দুর্গাপুর ব্যারাজের ভাঙা লকগেট দিয়ে বেরোচ্ছে জল। 
দুর্গাপুর ব্যারাজের ভাঙা লকগেট দিয়ে বেরোচ্ছে জল। 

আজই শেষ হবে দুর্গাপুর ব্যারাজের ভাঙা লকগেটের মেরামতি

  • জলের জোগান না থাকায় বন্ধ করে দিতে হয় মেজিয়া তাপবিদ্যুৎকেন্দ্রের বেশ কয়েকটি ইউনিট। যার ফলে শিল্পাঞ্চলে বিদ্যুৎ সংকটের সম্ভাবনা দেখা দেয়।

ছ’দিন পর অবশেষে এল সুখবর। বৃহস্পতিবার বিকেলেই শেষ হবে দুর্গাপুর ব্যারাজের ভাঙা লকগেট মেরামতির কাজ। এদিন নবান্ন থেকে এমনটাই জানানো হয়েছে। এর ফলে গত প্রায় ১ সপ্তাহের জল ভোগান্তির অবসান হতে চলেছে দুর্গাপুর-সহ পশ্চিম বর্ধমান ও বাঁকুড়া জেলার বিস্তীর্ণ এলাকার বাসিন্দাদের। কাটতে চলেছে বিদ্যুৎ সংকেটর ফাঁড়াও।

গত শনিবার গভীর রাতে দুর্গাপুর ব্যারাজের ৩১ নম্বর লকগেট ভেঙে জল বেরোতে থাকে। এর পর ব্যারাজ খালি করতে খুলে দেওয়া হয় ৫টি লকগেট। তার পরও ব্যারাজ খালি হতে দীর্ঘ সময় লেগে যায়। ফলে মেরামতির কাজ শুরু করতে বেশ বেগ পেতে হয় পূর্ত দফতরের ইঞ্জিনিয়ারদের। 

ওদিকে ব্যারাজ খালি হয়ে যাওয়ায় দুর্গাপুরসহ বিস্তীর্ণ এলাকায় শুরু হয় জলসংকট। পশ্চিম বর্ধমান ও বাঁকুড়ার বিস্তীর্ণ এলাকা গত কয়েকদিন ধরে কার্যত জলশূন্য। এমনকী জলের জোগান না থাকায় বন্ধ করে দিতে হয় মেজিয়া তাপবিদ্যুৎকেন্দ্রের বেশ কয়েকটি ইউনিট। যার ফলে শিল্পাঞ্চলে বিদ্যুৎ সংকটের সম্ভাবনা দেখা দেয়। 

ব্যারাজ কর্তৃপক্ষের তরফে জানানো হয়েছে, পূর্ত দফতরের ইঞ্জিনিয়াররা মেরামতি শেষ হয়েছে বলে জানালে তা মাইথন ও পাঞ্চেত ব্যারাজ কর্তৃপক্ষকে জানানো হবে। এর পর সেখান থেকে জল ছাড়া শুরু করবে কর্তৃপক্ষ। সেই জল দুর্গাপুর ব্যারাজে এসে পৌঁছতে কয়েক ঘণ্টা সময় লাগবে। তার পরই ক্রমশ স্বাভাবিক হবে পরিস্থিতি। 

 

বন্ধ করুন