বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ফেরার কথা ছিল ৩ দিন পরেই,বিহারে কাজে গিয়ে গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যু মালদহের শামিমের
মালদহের এক পরিযায়ী শ্রমিককে বিহারে গুলি করে খুন করার অভিযোগ উঠল।
মালদহের এক পরিযায়ী শ্রমিককে বিহারে গুলি করে খুন করার অভিযোগ উঠল।

ফেরার কথা ছিল ৩ দিন পরেই,বিহারে কাজে গিয়ে গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যু মালদহের শামিমের

  • আচমকাই মৃত্যুর খবর পেয়ে শোকস্তব্ধ হয়ে পড়েছেন শ্রমিকের পরিবারের লোকেরা।

মালদহের এক পরিযায়ী শ্রমিককে বিহারে গুলি করে খুন করার অভিযোগ উঠল। মৃত শ্রমিকের নাম শামিম আক্তার। তিনি মালদহের হরিশ্চন্দ্রপুরের কাওয়ামারি গ্রামের বাসিন্দা।

অভাবের তাড়নায় তিনি বিহারে কাজে গিয়েছিলেন। তিনদিন পর তাঁর বাড়ি ফেরার কথা ছিল। কিন্তু, বাড়ি ফেরা আর তার হল না। আচমকাই মৃত্যুর খবর পেয়ে শোকস্তব্ধ হয়ে পড়েছেন শ্রমিকের পরিবারের লোকেরা। ঘটনায় স্থানীয় বিধায়ক এবং তৃণমূল নেতারা শামিমের পরিবারকে সমস্তরকমভাবে আর্থিক সাহায্য করার আশ্বাস দিয়েছে।

পারিবারিক সূত্রে জানা যাচ্ছে, এলাকায় জামাল নামে পরিচিত শামিম আখতার স্ত্রী কন্যাসন্তান এবং বৃদ্ধ মায়ের সঙ্গে কাউয়ামারি গ্রামে থাকতেন। সেখানেই কোনওভাবে কাজ করে সংসার চলত শামিমের। তবে লকডাউনের পর আর্থিক সমস্যা বেড়ে যাওয়ায় তিনি বিহারে গিয়ে কাজ করার সিদ্ধান্ত নেন। সেই মতোই বিহারের পাটনার আস্তানা এলাকায় পাইপ পুশিংয়ের কাজ শুরু করেন। এলাকার আরও বেশ কয়েকজন যুবক তাঁর সঙ্গে সেখানে কাজে যান। সোমবার রাতে কাজ করে ঘরে ফেরার সময় দুষ্কৃতীরা তাঁকে লক্ষ্য করে গুলি চালায় বলে অভিযোগ। দুষ্কৃতীদের পরপর তিনটি ছোড়া গুলিতে গুরুতরভাবে জখম হন শামিম। পরে হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানেই তার মৃত্যু হয়।

এই ঘটনার খবর পাওয়ার পর এলাকার তৃণমূল বিধায়ক তজমুল হোসেন এবং মালদহ জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক বুলবুল খান তাঁর বাড়ি গিয়ে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে দেখা করেন। মৃত পরিযায়ী শ্রমিকের পরিবারকে আর্থিক সাহায্য করার পাশাপাশি দোষীদের শাস্তির জন্য মুখ্যমন্ত্রীর কাছে আবেদন করবেন বলে তাঁরা আশ্বাস দিয়েছেন।

বন্ধ করুন