বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > রক্ষক–ভক্ষক–তক্ষক তিন ভাই!‌ সিপিএম–বিজেপি–কংগ্রেসকে তোপ মমতার
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)

রক্ষক–ভক্ষক–তক্ষক তিন ভাই!‌ সিপিএম–বিজেপি–কংগ্রেসকে তোপ মমতার

এবার একুশের নির্বাচনী প্রচারের সুর বেঁধে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী। মেদিনীপুরের কলেজ মাঠের সভা থেকে একযোগে সিপিএম, কংগ্রেস, বিজেপির উদ্দেশ্যে কড়া আক্রমণ শানালেন তিনি।

বিরোধী নেত্রী থাকার সময় তিনি বলেছিলেন, কংগ্রেস হল সিপিএমের বি–টিম। বাংলার নেত্রীর সেই ভবিষ্যদ্বাণী এবং দাবি মিলে গিয়েছে বলে তৃণমূল কংগ্রেসের একাংশের বক্তব্য। কারণ এই রাজ্যে তাঁরা জোট করে লড়াই করছে। এবার একুশের নির্বাচনী প্রচারের সুর বেঁধে দিলেন তৃণমূল কংগ্রেস সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মেদিনীপুরের কলেজ মাঠের সভা থেকে একযোগে সিপিএম, কংগ্রেস, বিজেপ্যে কড়া আক্রমণ শানালেন তিনি।

লোকসভা নির্বাচনে পরিষ্কার দেখা গিয়েছিল, সিপিএমের ভোটব্যাঙ্ক গিয়েছে বিজেপি ঝুলিতে। তাতেই ৪২টির মধ্যে ১৮টি আসন পেয়েছিল গেরুয়া শিবির। আর নিজের নাক কেটে পরের যাত্রাভঙ্গ করতে গিয়ে খালি হাতেই ফিরতে হয়েছিল। তাই এবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সোমবার তোপ দাগেন, ‘‌সিপিএম, কংগ্রেস, বিজেপি ঘোলা জলে মাছ ধরতে নেমেছে। বাংলায় জোট বেঁধেছে ওরা। যৌথভাবে সরকার, দল, বাড়ি ভাঙছে। টাকা ছড়াচ্ছে। কুৎসা করছে। অপপ্রচার করছে। কিন্তু তোমরা ভুলে যাচ্ছ যে তোমাদের উৎখাত হওয়ার সময় হয়ে এসে গিয়েছে।’‌

তারপরই কটাক্ষ করে বলেন, ‘‌সিপিএম–বিজেপি–কংগ্রেস এখন তিন ভাই। একজন রক্ষা করছে। আর একজন ভক্ষণ করছে। আরও একজন তক্ষক। অর্থাৎ রক্ষক–ভক্ষক–তক্ষক। আমি বলি কঙ্কা–বঙ্কা–শঙ্কা। জনগণ আছে সঙ্গে, তাই একুশে তৃণমূল কংগ্রেস আসছে বঙ্গে।’‌

কেন্দ্রের বিজেপি সরকার রেল, এয়ার ইন্ডিয়া, কয়লা, ভেল, ব্যাঙ্ক সব বিক্রি করার চক্রান্ত কষছে বলে অভিযোগ করেন মমতা। একইসঙ্গে তোপ দাগেন, 'কেন্দ্রের বিজেপি সরকার সবার টাকার হিসাব চাইছে। নিজেরা পিএম কেয়ার্স ফান্ডের হিসেব দিক। করোনার নামে যে এত কোটি কোটি টাকা তুললেন, তার কী হল? সবাই দুর্নীতিপরায়ণ, আর ওরাই শুধু সাধু। তাহলে রাফাল দুর্নীতির কী হল? মিথ্যের ডাস্টবিন নিয়ে বসে আছে বিজেপি।' মমতা হুঁশিয়ারি দেন, ‘‌বাংলাকে কিছুতেই গুজরাত বানাতে দেব না। ২০২১ আমাদের।’‌

বন্ধ করুন