বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > মধ্যমগ্রামের প্রশাসনিক বৈঠকে সশরীরে হাজির হননি BDO-রা, মেজাজ হারালেন মমতা
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

মধ্যমগ্রামের প্রশাসনিক বৈঠকে সশরীরে হাজির হননি BDO-রা, মেজাজ হারালেন মমতা

  • পুরসভাগুলির কাজে সন্তুষ্ট নন মুখ্যমন্ত্রী। বিভিন্ন পুর প্রশাসক বোর্ডের সদস্যদের মমতা বলেন, 'আপনারা এলাকা ঘুরে দেখছেন না। এলাকার কাজকে গুরুত্ব দিচ্ছেন না।'

এদিন উত্তর ২৪ পরগনার মধ্যমগ্রামের প্রশাসনিক সভায় উপস্থিত হয়ে মেজাজ হারালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। জেলার পাঁচ মহকুমা শাসক সশরীরে সভায় উপস্থিত না থাকায় ক্ষুব্ধ হয়ে সভা ছাড়েন মমতা। এদিকে পুরসভাগুলির কাজেও এদিন অসন্তোষ প্রকাশ করেন মুখ্যমন্ত্রী। মুখ্যমন্ত্রী সরাসরি হুঁশিয়ারির সুরে বলেন, 'কাজ করলে পুরস্কার পাবেন। কাজ না করলে ভেবে দেখতে হবে।' উত্তর ২৪ পরগনার বিভিন্ন পুর প্রশাসক বোর্ডের সদস্যদের মমতা বলেন, 'আপনারা এলাকা ঘুরে দেখছেন না। এলাকার কাজকে গুরুত্ব দিচ্ছেন না।'

বিভিন্ন পুরসভার কাউন্সিলরদের কাজে ক্ষোভ প্রকাশ করে মমতা এদিন বলেন, 'অনেক অভিযোগ রয়েছে। রাস্তাঘাট, জল, লাইটের কাজ করুন।' ব্যারাকপুর, কামারহাটি, খড়দহ, দমদম পুরভার প্রধানদের থেকে কাজের খতিয়ান নেন মুখ্যমন্ত্রী। মমতা ঘোষণা করেন, ধাপে ধাপে সমস্ত পুরসভার নির্বাচন হবে। ম্যালেরিয়া এবং ডেঙ্গু নিয়েও পুরসভাগুলোকে সতর্ক হতে বলেন মুখ্যমন্ত্রী।

এদিকে কলকাতা ও বিধাননগর কমিশনারেটের মধ্যকার দ্বন্দ্বের প্রসঙ্গ তুলে তা মেটাতে বলেন মমতা। মুখ্যমন্ত্রী এদিন বলেন, 'শীঘ্র দ্বন্দ্ব মেটান। নিজেরা বসে আগে ইগোর লড়াই মেটান। মানুষ দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন। চিংড়িঘাটায় এত দুর্ঘটনা কেন?' এদিকে আজকের প্রশাসনিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী ঘোষণা করেন, তৃণমূলের প্রতিষ্ঠা দিবস, ১ জানুয়ারি পালিত হবে ছাত্রছাত্রী দিবস হিসেবে। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, 'ছাত্রছাত্রীরাই দেশের ভবিষ্যৎ।'

বন্ধ করুন