বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > আত্মহত্যা নয়, খুনই হয়েছেন কালিয়াগঞ্জের যুবতী, ধৃত প্রেমিক
প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

আত্মহত্যা নয়, খুনই হয়েছেন কালিয়াগঞ্জের যুবতী, ধৃত প্রেমিক

  • একটি পুত্র ও একটি কন্যাসন্তান রয়েছে তাঁর। ৩ বছর আগে স্বামীর মৃত্যুর পর কালিয়াগঞ্জের বোঁচাডাঙা গ্রাম পঞ্চায়েতের পূর্ব শংকরপুর গ্রামে বাপের বাড়িতে ফিরে আসে সে।

উত্তর দিনাজপুরের কালিয়াগঞ্জে খড়ের গাদার ওপর থেকে বধূর দেহ উদ্ধারের ঘটনার কিনারা করল পুলিশ। এই ঘটনায় শাহজাহান নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছেন তদন্তকারীরা। পুলিশের দাবি, বিয়ের জন্য চাপ দেওয়ায় তপতী রায় বসাক (২৪) নামে ওই তরুণী চাপ দেওয়ায় তাকে খুন করেছে বলে স্বীকার করেছে অভিযুক্ত।

শুক্রবার সকালে কালিয়াগঞ্জের দক্ষিণ কৃষ্ণপুর এলাকা থেকে তপতীর দেহ উদ্ধার হয়। পাশে পাওয়া যায় তাঁর সাইকেলটি। একটি কীটনাশকের শিশি ও একটি সুইসাইড নোট। তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে বধূর শ্বশুরবাড়ি কুশমণ্ডিতে। একটি পুত্র ও একটি কন্যাসন্তান রয়েছে তাঁর। ৩ বছর আগে স্বামীর মৃত্যুর পর কালিয়াগঞ্জের বোঁচাডাঙা গ্রাম পঞ্চায়েতের পূর্ব শংকরপুর গ্রামে বাপের বাড়িতে ফিরে আসে সে। এর পর কাজ নেই কাছেই একটি প্লাইউড কারখানায়। বছর দেড়েক ধরে বধূর সঙ্গে শাহজাহান নামে এক যুবকের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। বিয়ে করার জন্য শাহজাহানকে চাপ দিচ্ছিল তপতী। কিন্তু বিয়ে করতে রাজি ছিল না যুবক। এই নিয়ে মতবিরোধের জেরেই খুন।

পুলিশ জানিয়েছে, মৃতের কাছ থেকে যে সুইসাইড নোট উদ্ধার হয়েছে তা শাহজাহানেরই লেখা। হাতের লেখা পরীক্ষা করে তা নিশ্চিত হয়েছেন তদন্তকারীরা। ধৃত খুনের কথা স্বীকার করেছে বলে দাবি গোয়েন্দাদের।

 

বন্ধ করুন