বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > শিলিগুড়িতে স্বাস্থ্যসাথী কার্ড হাতে একের পর এক নার্সিংহোম ঘুরে মৃত্যু রোগীর
প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

শিলিগুড়িতে স্বাস্থ্যসাথী কার্ড হাতে একের পর এক নার্সিংহোম ঘুরে মৃত্যু রোগীর

  • ভর্তি করতে না পেরে মহম্মদ গফ্ফরকে ফের বাড়িতে নিয়ে আসেন পরিবারের সদস্যরা। সেখানেই তাঁর মৃত্যু হয়।

স্বাস্থ্যসাথী কার্ড থাকলেও বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা না পাওয়ার অভিযোগ উঠেছে কলকাতা-সহ রাজ্যের একাধিক জায়গায়। এবার কার্ড নিয়ে একাধিক নার্সিংহোমে ঘুরে মৃত্যুর অভিযোগ উঠল শিলিগুড়িতে। মৃতের নাম মহম্মদ গফ্ফার। পরিবারের অভিযোগ, অসুস্থ গফ্ফার সাহেবকে স্বাস্থ্যসাথী কার্ডের ভরসায় ভর্তি নেয়নি কোনও বেসরকারি হাসপাতাল। পরে বাড়িতে মৃত্যু হয় তাঁর।

শিলিগুড়ি লাগোয়া মাটিগাড়ার প্রমোদনগরের বাসিন্দা মহম্মদ গফ্ফার শারীরিক জটিলতা নিয়ে কয়েকদিন আগে উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি হন। সেখান থেকে ছুটি দেওয়ার পর ফের বাড়ি এসে অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। এর পর তাঁকে নিয়ে শহরের একাধিক বেসরকারি হাসপাতালে যান পরিবারের সদস্যরা। সঙ্গে ছিল সপ্তাহ দুয়েক আগে করানো স্বাস্থ্যসাথী কার্ড। অভিযোগ, স্বাস্থ্যসাথী কার্ডে অসুস্থ বৃদ্ধকে ভর্তি নিতে রাজি হয়নি কোনও হাসপাতাল। 

ভর্তি করতে না পেরে মহম্মদ গফ্ফরকে ফের বাড়িতে নিয়ে আসেন পরিবারের সদস্যরা। সেখানেই তাঁর মৃত্যু হয়। 

পরিবারটির অভিযোগ, লাইনে দাঁড়িয়ে ২ সপ্তাহ আগেই ওই কার্ড করা হয়েছিল। জানানো হয়েছিল ৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত চিকিৎসা মিলবে বিনামূল্যে। কিন্তু কোনও নার্সিংহোম কার্ড নিতে রাজি হয়নি।

এই নিয়ে শোরগোল শুরু হতেই শিলিগুড়ি শহরের নার্সিংহোমের কর্ণধারদের নিয়ে বৈঠকে বসেন মন্ত্রী গৌতম দেব। সেখানে স্বাস্থ্যসাথী কার্ড ধারকদের ফেরানো যাবে না বলে জানান তিনি। নার্সিহোমগুলিকে তাঁদের সামাজিক দায়িত্বের কথা মনে করান। পালটা একগুচ্ছ দাবিদাওয়া জানান নার্সিংহোমের মালিকরা। দাবি মানা না হলে পরিষেবা দেওয়া সম্ভব নয় বলে জানিয়েছে নার্সিংহোমগুলি। 

 

বন্ধ করুন