ছবিটি প্রতীকী (সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)
ছবিটি প্রতীকী (সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)

২ বার প্রেমে ব্যর্থ হয়ে ডেটিং সাইটে CA, খোয়ালেন ৩ লাখ

প্রথম স্ত্রীয়ের সঙ্গে ডিভোর্স হয়েছিল ওই ব্যক্তির। দ্বিতীয় স্ত্রীয়ের সঙ্গে বিচ্ছেদ হয়ে যায়। তারপর থেকে একাকীত্বে ভুগছিলেন তিনি।

দু'বার ডিভোর্স। একাকীত্বে ভুগছিলেন এক চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্ট। সেজন্য ডেটিং সাইটে অ্যাকাউন্ট খোলেন। কিন্তু, প্রেমিকার খোঁজে প্রতারণার শিকার হলেন মুম্বইয়ের এক ব্যক্তি। ঘটনায় হাওড়ার এক যুবককে গ্রেফতার করেছে মুম্বই পুলিশ। ধৃতের নাম অর্ণব সিং ওরফে নীল রায় বনমালী (২৬)।

অভিযোগপত্র অনুযায়ী, প্রথম স্ত্রীয়ের সঙ্গে ডিভোর্স হয়েছিল ওই ব্যক্তির। দ্বিতীয় স্ত্রীয়ের সঙ্গে বিচ্ছেদ হয়ে যায়। তারপর থেকে একাকীত্বে ভুগছিলেন। সেজন্য গত এপ্রিলে একটি ডেটিং সাইটে অ্যাকাউন্ট খোলেন। দিনকয়েক পর সেখান থেকে একটি ফোন পান। তাঁর হোয়াটসঅ্যাপে পাঁচ মহিলার ছবি পাঠানো হয়। একজনকে বেছে নেন অভিযোগকারী। তাঁকে রেজিস্টার করতে বলা হয়। সেজন্য একটি নির্দিষ্ট অঙ্কের টাকা দিতে বলা হয়।

সেই টাকা দেন ওই ব্যক্তি। প্রমাণ হিসেবে তাঁর থেকে আধার কার্ড ও ছবি চাওয়া হয়। তাও পাঠিয়ে দেন। নিজেদের পছন্দের মহিলার সঙ্গে কথা বলার পরিবর্তে তাঁর থেকে ফের টাকা চাওয়া হলে এবারও দিয়ে দেন। এরপর এক মহিলার সঙ্গে ফোনে কথা বলেন অভিযোগকারী। মহিলার সঙ্গে দেখা করার জন্য আরও টাকা দাবি করা হয়। এভাবে নানা অছিলায় বাববার টাকা চাওয়া হতে থাকে। শেষপর্যন্ত আর কোনও টাকা দিতে অস্বীকার করেন অভিযোগকারী। তারপরই তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয় প্রতারকরা। ততদিনে অবশ্য তাঁর ৩.২ লাখ টাকা খোয়া গেছে অভিযোগকারীর।

এরপর পুলিশে অভিযোগ জানান ব্যক্তি। তদন্তে নেমে প্রতারকের খোঁজ পায় পোয়াই পুলিশ। তারা জানতে পারে, এরইরকম আরও একটি অভিযোগে ওই যুবককে গ্রেফতার করেছে খাড়গর পুলিশ। সে বিচারবিভাগীয় হেফাজত ছিল। পোয়াই থানার সিনিয়ন ইন্সপেক্টর জানান, শনিবার অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

বন্ধ করুন