বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ছাগলচোর সন্দেহে ৫ ঘণ্টা খুঁটিতে বেঁধে মারধর, সংজ্ঞা হারালেন যুবক
প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

ছাগলচোর সন্দেহে ৫ ঘণ্টা খুঁটিতে বেঁধে মারধর, সংজ্ঞা হারালেন যুবক

  • এর পর যুবককে গ্রামের মাঝে একটি খুঁটিতে বেঁধে ফেলেন কয়েকজন। সঙ্গে শুরু হয় গণধোলাই। যুবক জল চাইলেও কেউ জল দেননি বলে অভিযোগ।

ছাগল চোর সন্দেহে এক যুবককে খুঁটিতে বেঁধে নৃশংস নির্যাতন করার অভিযোগ উঠল মালদার হবিবপুরে। টানা ৫ ঘণ্টা যুবককে খুঁটির সঙ্গে বেঁধে রাখেন কয়েকজন গ্রামবাসী। সঙ্গে চলে মারধর। খবর পেয়ে পুলিশকর্মীরা গিয়ে যুবককে উদ্ধার করেন।

হবিবপুরের কেন্দাপুকুর এলাকার বাসিন্দাদের দাবি, কয়েকদিন ধরে এলাকায় ছাগল চুরি হচ্ছিল। চোর ধরার জন্য তক্কে তক্কে ছিলেন তাঁরা। শনিবার গ্রামের শ্মশানের পাশ দিয়ে এক যুবককে ঘোরাফেরা করতে দেখেন স্থানীয়রা। কোনও কথা না শুনে যুবককে ছাগল চোর সাজিয়ে গ্রামে নিয়ে যান। এর পর বসে সালিশি। সেখানে যুবককে খুঁটিতে বেঁধে রাখা উচিত বলে সাব্যস্ত হয়।

এর পর যুবককে গ্রামের মাঝে একটি খুঁটিতে বেঁধে ফেলেন কয়েকজন। সঙ্গে শুরু হয় গণধোলাই। যুবক জল চাইলেও কেউ জল দেননি বলে অভিযোগ। টানা ৫ ঘণ্টা ওই ভাবে দাঁড়িয়ে থাকার পর সংজ্ঞা হারান যুবক।

খবর পেয়ে গ্রামে পৌঁছয় হবিবপুর থানার পুলিশ। আধিকারিকরা যুবককে উদ্ধার করে চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন। যারা এই নির্যাতনের সঙ্গে যুক্ত তাদের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ করা হবে বলে পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে।

 

বন্ধ করুন