বাড়ি > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > বিদেশ থেকে ফেরার পর জ্বর, মেদিনীপুর থেকে ব্যবসায়ীকে তুলে আনা হল বেলেঘাটায়
ইলেক্ট্রন মাইক্রোস্কোপের নীচে কৃত্রিমভাবে রঞ্জিত করোনাভাইরাস (AP)
ইলেক্ট্রন মাইক্রোস্কোপের নীচে কৃত্রিমভাবে রঞ্জিত করোনাভাইরাস (AP)

বিদেশ থেকে ফেরার পর জ্বর, মেদিনীপুর থেকে ব্যবসায়ীকে তুলে আনা হল বেলেঘাটায়

  • জানা গিয়েছে, দমদম বিমানবন্দরে তাঁর স্বাস্থ্য পরীক্ষা হয়নি। বাড়ি ফিরতেই তাঁর জ্বরের উপসর্গ দেখা দেয়।

বিদেশ থেকে ফেরার পর জ্বরে আক্রান্ত হওয়ায় এক ব্যক্তিকে কার্যত পাকড়াও করে বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে ভর্তি করাল প্রশাসন। পূর্ব মেদিনীপুরের ভগবানপুরের বাসিন্দা ওই ব্যক্তি সম্প্রতি ইন্দোনেশিয়া থেকে ফিরেছেন। তার পর তাঁর জ্বর-সহ অন্যান্য উপসর্গ দেখা দিয়েছে। খবর পেয়ে গোবিন্দ সাউ নামে ওই ব্যক্তিকে কার্যত জোর করে নিয়ে আসেন জেলার স্বাস্থ্যকর্মীরা।

পেশায় নির্মাণসামগ্রীয় ব্যবসায়ী গোবিন্দবাবু ফেব্রুয়ারির শেষ সপ্তাহে ইন্দোনেশিয়া থেকে ফিরেছেন। ব্যবসার কাজে সেখানে গিয়েছিলেন তিনি। জানা গিয়েছে, দমদম বিমানবন্দরে তাঁর স্বাস্থ্য পরীক্ষা হয়নি। বাড়ি ফিরতেই তাঁর জ্বরের উপসর্গ দেখা দেয়। সঙ্গে প্রবল কাশি। খবর যায় জেলা স্বাস্থ্য দফতরের কর্মীদের কাছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে পুলিশ ও অ্যাম্বুল্যান্স নিয়ে গোবিন্দবাবুর বাড়িতে পৌঁছন স্বাস্থ্যকর্মীরা। তাঁকে একপ্রকার বাধ্য করা হয় অ্যাম্বুল্যান্সে উঠতে। তার পর গাড়ি ছোটে বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালের দিকে।

পূর্ব মেদিনীপুরের CMOH জানিয়েছেন, ‘ভদ্রলোককে বহুবার বেলেঘাটা আইডিতে ভর্তি হতে বলেছি। উনি শোনেননি। তাই আজ পুলিশ নিয়ে গিয়ে ওকে তুলে আনতে হল। উনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত কি না তা পরীক্ষার পরই জানা যাবে।’

গোবিন্দবাবুর এহেন আচরণের জন্য সচেতনতার অভাবকেই দায়ী করছেন অনেকে। পরীক্ষা না করালে যে রোগের বিপদ কমে না বই বাড়ে, এই সহজ সত্য না বুঝে আরও কিছুদিন আনন্দে থাকার চেষ্টা করেন অনেকে।


বন্ধ করুন