বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > চরম অমানবিকতা, চোর সন্দেহে মানসিক ভারসাম্যহীন ব্যক্তিকে বেধড়ক মারধর মালদহে
চরম অমানবিকতা, স্রেফ চোর সন্দেহে মানসিক ভারসাম্যহীনকে বেধড়ক পেটাল স্থানীয়রা! (প্রতীকী ছবি)
চরম অমানবিকতা, স্রেফ চোর সন্দেহে মানসিক ভারসাম্যহীনকে বেধড়ক পেটাল স্থানীয়রা! (প্রতীকী ছবি)

চরম অমানবিকতা, চোর সন্দেহে মানসিক ভারসাম্যহীন ব্যক্তিকে বেধড়ক মারধর মালদহে

মালদহ জেলার পুলিশ সুপার অলোক রাজোরিয়া জানিয়েছেন, যারা এই ঘটনায় যুক্ত, তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

অমানবিকতার ছবি ধরা পড়ল মালদহে। চোর সন্দেহে এক মানসিক ভারসাম্যহীন ব্যক্তিকে বিদ্যুতের খুটিতে বেঁধে বেধড়ক মারধর করার অভিযোগ উঠল একাংশ স্থানীয় বাসিন্দাদের বিরুদ্ধে। ঘটনা ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে গোটা এলাকায়।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে মঙ্গলবাড়ি ফাঁড়ির পুলিশ। ঘটনাস্থলে পৌঁছে উন্মত্ত জনতার হাত থেকে গুরুতর আহত অবস্থায় ওই ব্যক্তিকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায় পুলিশ। এই ঘটনা প্রসঙ্গে মালদহ জেলার পুলিশ সুপার অলোক রাজোরিয়া জানিয়েছেন, যারা এই ঘটনায় যুক্ত, তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

রবিবার সকালে মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটেছে পুরাতন মালদহ ব্লকের মঙ্গলবাড়ি গৌড় কলেজ সংলগ্ন একটি পেট্রল পাম্পের সামনে। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, কয়েকদিন ধরেই ওই এলাকায় সাইকেল চুরি হচ্ছিল। ইতিমধ্যেই বেশ কয়েকটি বাইকও চুরি হয়ে যায়। এলাকাবাসীরা সন্দেহ করেন, স্থানীয় কেউ হয়তো এই চুরির ঘটনার সঙ্গে জড়িত রয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে আরও জানা গিয়েছে, গত কয়েকমাস ধরেই ওই এলাকায় নির্যাতিত ওই ব্যক্তিকে আনাগোনা করতে দেখেছিলেন স্থানীয়রা। পরনে ছেঁড়া জামা কাপড়, উসকো চুলের ওই ব্যক্তিকে দোকানে খাবার চাইতে দেখা যাচ্ছিল। এমনকী, খাবারের দোকানে দাঁড়িয়ে সবার অলক্ষ্যে খাবার নিয়ে পালানোর চেষ্টা করতে গিয়ে দোকানদারের কাছে ধমকও খেতে দেখেছিলেন অনেকে।

অভিযোগ ওঠে, স্রেফ সন্দেহের বশে স্থানীয়দের একাংশ ওই ব্যক্তিকে ধরে জিজ্ঞাসাবাদ করতে শুরু করেন। কিন্তু মানসিক ভারসাম্যহীন হওয়ার কারণে ওই ব্যক্তি কোনও সদুত্তর দিতে পারেননি। এরপরই গোটা এলাকায় গুজব ছড়িয়ে যায়। এরপর কোনও প্রমাণ ছাড়াই স্থানীয় বাসিন্দাদের একাংশ ওই ব্যক্তিকে একটি বিদ্যুতের খুঁটি সঙ্গে দড়ি দিয়ে বেঁধে রড, লাঠি নিয়ে বেধড়ক মারধর করে বলে অভিযোগ। কিছুক্ষণের মধ্যেই রক্তাক্ত অবস্থায় সেখানেই নেতিয়ে পড়েন প্রহৃত ব্যক্তি। এমনকী এলাকার অন্যান্য বাসিন্দারা বাধা দিতে গেলেও উন্মত্ত জনতাকে রোখা যায়নি। এরপর পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনে আহত ওই ব্যক্তিকে উদ্ধার করে।

বন্ধ করুন