বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ‘এটা কি তোর বাপের জায়গা?’‌, গালিগালাজ করে সন্ন্যাসীর মুখে মদ ঢালল দুষ্কৃতিরা
সন্ন্যাসীর মুখে জোর করে মদ ঢেলে দিল একদল দুষ্কৃতি। ছবিটি প্রতীকী
সন্ন্যাসীর মুখে জোর করে মদ ঢেলে দিল একদল দুষ্কৃতি। ছবিটি প্রতীকী

‘এটা কি তোর বাপের জায়গা?’‌, গালিগালাজ করে সন্ন্যাসীর মুখে মদ ঢালল দুষ্কৃতিরা

  • চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে রামপুরহাট পৌরসভার ১৮ নম্বর ওয়ার্ডের শ্রী শ্রী রামকৃষ্ণ সেবাশ্রম সঙ্ঘের প্রাঙ্গণে।

মদ্যপানের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়েছিলেন তিনি। কারণ আশ্রমের সামনে মদ্যপান করা উচিত নয় বলেই মনে করেছিলেন তিনি। প্রতিবাদ করতেই সন্ন্যাসীর মুখে জোর করে মদ ঢেলে দিল একদল দুষ্কৃতি। অধর্মের কাছে ধর্মের পথ যেন পরাজিত হল। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে রামপুরহাট পৌরসভার ১৮ নম্বর ওয়ার্ডের শ্রী শ্রী রামকৃষ্ণ সেবাশ্রম সঙ্ঘের প্রাঙ্গণে। গভীর রাতের এই ঘটনায় তুঙ্গে উঠেছে চর্চা।

ঠিক কী ঘটেছিল?‌ আক্রান্ত সন্ন্যাসীর বয়ান অনুযায়ী, বুধবার গভীর রাতে আশ্রমের বাইরে চিত্‍কার চেঁচামেচি শুনতে পেয়ে তিনি বাইরে আসেন। তখন কয়েকজন নেশাগ্রস্ত যুবককে আশ্রম প্রাঙ্গণে বসে মদ্যপান করতে দেখেন তিনি। এটারই প্রতিবাদ করেন তিনি। অভিযোগ, তৎক্ষনাৎ ওই দুষ্কৃতিরা সন্ন্যাসীর উপর চড়াও হয়ে মুখে জোর করে মদ ঢেলে দেয়। সন্ন্যাসী চিত্‍কার করে উঠলে দুষ্কৃতিরা পালিয়ে যায়। তারপর থেকে তাঁকে ক্রমাগত প্রাণে মারার হুমকিও দেওয়া হচ্ছে। রামপুরহাট থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন ওই সন্ন্যাসী।

আক্রান্ত সন্ন্যাসীর কথায়, আশ্রম লাগোয়া প্রাঙ্গণে মদ্যপান করতে নিষেধ করেছিলাম। ওখান থেকে চলে যেতে বলেছিলাম। এটাই আমার অপরাধ। তার জেরে যা সহ্য করতে হল তা ভাবতে পারছি না। উলটে হুমকি দেয়, ‘এটা কি তোর বাপের জায়গা? ওরা আমায় ধরে বেঁধে মুখে মদ ঢেলে দেয়। আমি চিত্‍কার করতে পালিয়ে যায়। আজ থানায় এবং স্থানীয় কাউন্সিলরকে জানিয়েছি।’‌

এই বিষয়ে স্থানীয় তৃণমূল কংগ্রেস কাউন্সিলর জানান, রামপুরহাট থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়েছে। কারা এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত তা স্পষ্ট নয়। দোষীদের উপযুক্ত শাস্তি দেওয়া হবে। ঘটনাটিকে কেন্দ্র করে আশ্রম কমিটির সঙ্গেও কথা হয়েছে। ওই সন্ন্যাসীর নিরাপত্তাতেও বিশেষ নজর দেওয়া হবে।

বন্ধ করুন