বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > বিমানবন্দরে মিহির গোস্বামী, বিজেপি সভাপতির হাত ধরে বিজেপিতে যোগ
মিহির গোস্বামী
মিহির গোস্বামী

বিমানবন্দরে মিহির গোস্বামী, বিজেপি সভাপতির হাত ধরে বিজেপিতে যোগ

  • শুক্রবার সকালে প্রকাশ্যে বিজেপি সাংসদ নিশীথ প্রামাণিকের সঙ্গে দেখা করে ঘাসফুল থেকে পদ্মফুলে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

তিনি কথা দিয়েছিলেন, তৃণমূলে আর তিনি ফিরবেন না। বলেছিলেন, এখন তৃণমূল আর দিদির দল নেই। নিজের অফিস ও কার্যালয় থেকে সরিয়ে ফেলেছিলেন দলের পতাকা, ফেস্টুন এমনকী মুখ্যমন্ত্রীর ছবিও। আর ভেতরে ভেতরে কথা সেরে রেখেছিলেন গেরুয়া শিবিরের সঙ্গে। এটা ঠিকাদারের দলে পরিণত হয়েছে বলেও কটাক্ষ করেছিলেন তিনি। হ্যাঁ, তিনি কোচবিহারে বিধায়ক মিহির গোস্বামী। যিনি শুক্রবার সকালে প্রকাশ্যে বিজেপি সাংসদ নিশীথ প্রামাণিকের সঙ্গে দেখা করে ঘাসফুল থেকে পদ্মফুলে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। বিমানবন্দরে দাঁড়িয়ে দুই রাজনৈতিক দলের দুই নেতার ছবি ঘিরে ইতিমধ্যেই চর্চা তুঙ্গে উঠেছে। দিল্লি যাচ্ছেন আজই পদ্মশিবিরে যোগ দিতে।

জানা গিয়েছে, আজ বিজেপি’‌র সর্বভারতীয় সভাপতির হাত ধরে বিজেপিতে যোগ দেবেন তিনি। বেশ কিছুদিন ধরেই কোচবিহার দক্ষিণের তৃণমূল বিধায়ক মিহির গোস্বামী দলের বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন। সাংগঠনিক পদও ছেড়েছেন। মুখ্যমন্ত্রী, দলের অন্যান্য নেতা-মন্ত্রী থেকে শুরু করে টিম পিকে, সকলের বিরুদ্ধেই সুর চড়িয়েছেন তিনি। বৃহ্স্পতিবার বিকেলেও ফেসবুক পোস্টে দলের বিরুদ্ধে একরাশ অভিমান প্রকাশ করেন তিনি। সেখানে তিনি লেখেন, ‘‌২২ বছর আগে যে দলটির সঙ্গে যোগ দিয়েছিলাম, আজকের তৃণমূল সেই দল নয়। এই দলে আমার জায়গা নেই। তাই আজ এই তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে আমার যাবতীয় সম্পর্ক ছিন্ন করতে চাই। আমি আশা করছি, আমার দীর্ঘদিনের সাথী, বন্ধু ও শুভানুধ্যায়ীরা আমাকে মার্জনা করবেন।’‌

সুতরাং রাস্তা তিনি পরিষ্কার করেই দিয়েছেন। একসময় বলেছিলেন, অন্য কেউ নয় অমিত শাহ ডাকলে যাব। তবে এই পোস্ট করার পর ব্যাগ গুছিয়ে বাড়ি থেকে বের হন বিক্ষুদ্ধ তৃণমূল বিধায়ক মিহির গোস্বামী। শুক্রবার সকালে প্রকাশ্যে আসে একটি ছবি, যেখানে দেখা যায় বিজেপি সাংসদ নিশীথ প্রামাণিক ও মিহির গোস্বামী বিমানবন্দরে দাঁড়িয়ে। সেই ছবি প্রকাশ্যে আসতেই দলবদলের কাউন্টডাউন শুরু হয়। তবে বন্ধ বিধায়কের ফোন। জানা গিয়েছে, সম্ভবত এই ছবি দিল্লি বিমানবন্দরের। আজই জেপি নাড্ডার সঙ্গে দেখা করবেন মিহিরবাবু। হাতে তুলে নিতে পারেন গেরুয়া শিবিরের পতাকাও। শুভেন্দু অধিকারীর মন্ত্রিত্ব থেকে ইস্তফার দিনই মিহির গোস্বামীর এই দলবদল বেশ তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছেন রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা।

বন্ধ করুন