বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > 'বিধায়ক চিপ কথা বলছেন',আর্জি শুনেই ধমক মমতার, বললেন ‘এবার কথা বলতে দেব না তাহলে’
উত্তর দিনাজপুর ও দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার প্রশাসনিক পর্যালোচনা বৈঠকে আবদুল করিম চৌধুরী এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। (ছবি সৌজন্য ভিডিয়ো)

'বিধায়ক চিপ কথা বলছেন',আর্জি শুনেই ধমক মমতার, বললেন ‘এবার কথা বলতে দেব না তাহলে’

  • পৃথক ইসলামপুর জেলার দাবি তুলেছিলেন বিধায়ক আবদুল করিম চৌধুরী।

পৃথক ইসলামপুর জেলার দাবি তুলেছিলেন বিধায়ক আবদুল করিম চৌধুরী। তাতে রেগে অগ্নিশর্মা হলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রীতিমতো কড়া সুরে বললেন, বিধায়ক ‘চিপ’ (সস্তা) কথা বলছেন। ‘এবার বলবে আমার ঘরের মধ্যে জেলা করে দিন।’

মঙ্গলবার উত্তর দিনাজপুর ও দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার প্রশাসনিক পর্যালোচনা বৈঠকের সময় ইসলামপুরে বিধায়ককে উদ্দেশ্য করে মমতা বলেন, ‘কী করিম দা, এনি প্রবলেম?’ একাধিক বিষয়ে কথা বলতে শুরু করেন তৃণমূল বিধায়ক। তা নিয়ে মমতা বলেন, ‘ধন্যবাদ। বেশি নয়, অল্প ভাষায় বলুন। কথা কম।' সঙ্গে বলেন,  ‘এক সেকেন্ডে, এক মিনিটে বলুন। এত ভাষণ দেওয়ার সময় নয় এটা।’ তারইমধ্যে ইসলামপুরকে পৃথক জেলা করে দেওয়ার আর্জি জানান বিধায়ক।

সেই আর্জি শুনেই রেগে যান মমতা। তিনি বলেন, ‘এরকম দাবি মিটিংয়ে করা উচিত নয়। ঠিক আছে! এরকম হয় না। বসুন। বসুন। এসব চিপ কথাবার্তা বলবেন না। তার কারণ আপনার এটুকু একটা ছোটো জেলা। তাতে দুটি মহকুমা আছে। ইসলামপুর মহকুমা আছে ইতিমধ্যে। ইসলামপুর পুলিশ জেলা আছে। অফিসার কোথা থেকে পাবেন? অফিসার পেলে তবে তো হবে!। একটা জেলা করতে অনেক কাজ করতে হয়। কোথা থেকে পাবেন? আপনার কি প্রবলেম আছে? রায়গঞ্জ থেকে ইসলামপুরের দূরত্ব কতটুকু! আপনি দেখেছেন যে সুন্দরবন এবং মুর্শিদাবাদ কত বড় জেলা। জিতে গিয়েছেন, এখন ভালো করে কাজ করুন। ওসব হবে না এখন।'

তারপরই কড়া সুরে মমতা বলেন, 'তাহলে কিন্তু আমি বিধায়কদের বলতে দেব না। বিধায়করা যদি মনে করেন, নিজেদের মতো চিপ কথাবার্তা বলবেন, আমি তাহলে বিধায়কদের কথা বলার অনুমতি দেব না। আই অ্যাম সরি (আমরা দুঃখিত)। কারণ সবকিছু করে দেওয়া হচ্ছে। আমি এটা নেবই না। ইফ দাবি ইজ জেনুইন (দাবি যদি যথার্থ হয়), তাহলেই করব। নাহলে করব না। ওইটুকুখানি জেলা। এবার বলবে আমার ঘরের মধ্যে জেলা করে দিন।’ সঙ্গে মমতা জানান, আধিকারিক থাকলে তো কোনও অসুবিধা ছিল না।

বন্ধ করুন