বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > TMC MLA: বউবাজারে মেট্রোর কাজের জন্য ফাটলের জেরে বাড়ি বদল করতে চান বিধায়ক তাপস
বউবাজার। ফাইল ছবি।

TMC MLA: বউবাজারে মেট্রোর কাজের জন্য ফাটলের জেরে বাড়ি বদল করতে চান বিধায়ক তাপস

  • এই তৃণমূল বিধায়কের ঠিকানা হল ১০৫ নম্বর বউবাজার স্ট্রিট। স্ত্রী এবং মেয়ের সঙ্গে এই বাড়িতেই থাকেন বিধায়ক। তার ছেলে থাকেন বিদেশে। এর আগে ২০১৯ সালে যখন মেট্রোর কাজের জন্য বউবাজারে দুর্ঘটনা ঘটেছিল তখনও তিনি অন্যত্র ছিলেন।

ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো প্রকল্পের কাজের জন্য গত বুধবার বউবাজারের দুর্গাপিতুরি লেনে ১০ থেকে ১২ টি বাড়িতে ফাটল দেখা দিয়েছে। তারপর থেকেই এখনও ঘরছাড়া রয়েছেন স্থানীয়রা বাসিন্দারা। তারা আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছেন। সেই তালিকায় রয়েছেন বরাহনগরের তৃণমূল বিধায়ক তাপস রায়ও। এই বিধায়কের ফ্ল্যাটেও ফাটল দেখা দিয়েছে। তারপর থেকেই বাকিদের মতো ঘরছাড়া রয়েছেন। দুর্ঘটনা ঘটনা আশঙ্কায় এখন তিনি বাড়ি ফিরতে চাইছেন। বাড়িবদলের চিন্তাভাবনা করছেন বিধায়ক।

এই তৃণমূল বিধায়কের ঠিকানা হল ১০৫ নম্বর বউবাজার স্ট্রিট। স্ত্রী এবং মেয়ের সঙ্গে এই বাড়িতেই থাকেন বিধায়ক। তার ছেলে থাকেন বিদেশে। এর আগে ২০১৯ সালে যখন মেট্রোর কাজের জন্য বউবাজারে দুর্ঘটনা ঘটেছিল তখনও তিনি অন্যত্র ছিলেন। আবার তিন বছর আগেকার সেই আতঙ্ক ফিরে এসেছে। পরিবারের সঙ্গে থাকায় এ নিয়ে যথেষ্ট উদ্বিগ্ন তৃণমূল বিধায়ক। তিনি বলেন, ‘আমরা বাড়িতে প্রত্যেকে উদ্বিগ্ন রয়েছি। তাই বিকল্প বাড়ির কথা ভাবছি।’ প্রয়োজন হলে তিনি ঋণ নিয়ে অন্য জায়গায় ঘর খুঁজে চলে যাবেন। তবে এখনই ফ্ল্যাট ছেড়ে দেওয়ার কথা ভাবছেন না বিধায়ক।

তিমধ্যেই, বউবাজারে দ্বিতীয়বার এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক চাপানউতোর তৈরি হয়েছে। বারবার এই দুর্ঘটনার জন্য কেএমআরসিএল’কে দায়ী করেছেন কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিম। তাঁর অভিযোগ, কেএমআরসিএলের উদাসীনতার জন্যই এই ঘটনা ঘটছে। যদিও এর পাল্টা জবাব দিতে ছাড়েননি বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তাঁর দাবি, রাজ্য সরকার একাধিকবার মেট্রোর নকশা পরিবর্তন করার জন্যই এই দুর্ঘটনা ঘটছে।

প্রসঙ্গত, মেট্রোর কাজের ফলে যে বাড়িগুলি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তার মধ্যে দুটি বাড়ির অবস্থা খারাপ। সেই দুটি বাড়ি আংশিকভাবে ভেঙে ফেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেএমআরসিএল। তবে যেগুলি এখনও বিপদজনক নয় সেগুলি ভেঙে ফেলার বিষয়ে পরবর্তী সময়ে সিদ্ধান্ত নেবে কেএমআরসিএল।

বন্ধ করুন