বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > মন্ত্রীর ওপর হামলা, দলের লোকদের নামে মুখ্যমন্ত্রীকে নালিশ ঠুকলেন বিধায়ক
ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

মন্ত্রীর ওপর হামলা, দলের লোকদের নামে মুখ্যমন্ত্রীকে নালিশ ঠুকলেন বিধায়ক

  • অভিযোগের তির যার বিরুদ্ধে, সেই ব্লক সভাপতি গোলাম মুর্শেদ জানান, ‘‌রাজ্যের মন্ত্রীর গাড়িতে হামলা হয়েছে ঠিকই। কিন্তু আমাদের ছেলেরা করেনি। অন্ধকারে কে বা কারা এই ধরনের ঘটনা ঘটাল, তা জানিনা।’‌

‌গতকাল রাজ্যের মন্ত্রী সুব্রত সাহার ওপর হামলা ঘটনা ঘটেছে। এবার এই হামলার ঘটনার প্রেক্ষিতেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে চিঠি লিখলেন বড়ঞাঁর তৃণমূল বিধায়ক জীবন কৃষ্ণ সাহা। তাঁর অভিযোগ দলের নেতাদের বিরুদ্ধেই।

জানা গিয়েছে, মুখ্যমন্ত্রীকে লেখা চিঠিতে ব্লক তৃণমূল সভাপতি গোলাম মুর্শেদ ও যুব তৃণমূল সভাপতি মাহে আলমের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়েছেন তৃণমূল বিধায়ক। ইতিমধ্যে রাজ্যের মন্ত্রীর ওপর হামলার ঘটনায় বড়ঞাঁ ব্লকের বিপ্রশেখর অঞ্চলের ব্লক সভাপতি রাজু মির্জা সহ ১৬ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩০৭, ৩৪১, ৩২৩, ৪২৭ ধারায় তাঁদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

রাজ্যের মন্ত্রীর ওপর হামলা প্রসঙ্গে তৃণমূল বিধায়ক জীবন কৃষ্ণ সাহা জানান, ‘‌মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে রাজ্যের মন্ত্রী সুব্রত সাহা শোকার্ত পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে দেখা করতে এসেছিলেন। তাই আমাকে তিনি ডেকে নিয়েছিলেন। করোনা পরিস্থিতিতে যেহেতু বেশি মানুষের যাওয়া ঠিক হবে না, তাই উনি আমাকে সঙ্গে নিয়ে যায়। তখনই ব্লক সভাপতি ও যুব সভাপতি তাঁদের দলবল নিয়ে আমাদের বাধা দেয়। ওদের লোকজন মন্ত্রী ও আমাকে মারধর করা শুরু করে। গোটা ঘটনায় আমরা থানায় অভিযোগ করেছি।’‌

যদিও অভিযোগের তির যার বিরুদ্ধে, সেই ব্লক সভাপতি গোলাম মুর্শেদ জানান, ‘‌রাজ্যের মন্ত্রীর গাড়িতে হামলা হয়েছে ঠিকই। কিন্তু আমাদের ছেলেরা করেনি। অন্ধকারে কে বা কারা এই ধরনের ঘটনা ঘটাল, তা জানিনা।’‌ উল্লেথ্য, কিছুদিন আগে গাড়িতে কলকাতা থেকে মুর্শিদাবাদ ফিরছিলেন একই পরিবারের ১১ জন সদস্য। দুর্ঘটনার কবলে পড়ে একই পরিবারের ৫ জনের মৃত্যু হয়। মর্মান্তিক এই ঘটনার কথা জানতে পেরে মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে পরিবারের সদস্যদের সমবেদনা জানাতে এসেছিলেন রাজ্যের মন্ত্রী। তৃণমূল বিধায়ক মন্ত্রীকে সঙ্গে নিয়ে একা যাওয়ায় দলের অপর গোষ্ঠীর মধ্যে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়। সেই থেকেই গণ্ডগোলের সূত্রপাত।

 

বন্ধ করুন