বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > রামভক্তদের তাণ্ডবে লণ্ডভণ্ড নন্দীগ্রাম, হনুমানের দাপটে গৃহবন্দি মানুষজন
খ্যাপা হনুমানের দল এলাকায় তাণ্ডব চালাতে শুরু করেছে।

রামভক্তদের তাণ্ডবে লণ্ডভণ্ড নন্দীগ্রাম, হনুমানের দাপটে গৃহবন্দি মানুষজন

  • এই পরিস্থিতিতে গ্রামবাসীরা স্বেচ্ছায় গৃহবন্দি থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

দুপুর হতেই নন্দীগ্রাম জুড়ে ছড়িয়ে পড়ল আতঙ্ক আতঙ্ক! একদল খ্যাপা হনুমানের দল এলাকায় তাণ্ডব চালাতে শুরু করেছে। রামভক্তের দাপটে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে নন্দীগ্রামের সামসাবাদ এলাকায়। হনুমানের কামড়ে এখনও পর্যন্ত ১২ জন গ্রামবাসী জখম হয়েছেন। এই পরিস্থিতিতে গ্রামবাসীরা স্বেচ্ছায় গৃহবন্দি থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

এই ঘটনায় খবর দেওয়া হয় বন দফতরে। বন দফতরের কর্মীরা এসে জাল ফেলে হনুমান ধরার চেষ্টা করলেও নাজেহাল হতে হয়। কারণ হনুমানের দল রীতিমতো বন কর্মীদের সঙ্গে গ্রামের বাঁশবন আর জঙ্গলের ভিতরে ঢুকে পড়ে লুকোচুরি খেলছে। ফলে নাগাল পাচ্ছেন না বন দফতরের কর্মীরা। হঠাৎ এই হনুমানের দল কোথা থেকে এলো বুঝতে পারছেন না তাঁরা।

ঠিক কী ঘটেছে নন্দীগ্রামে?‌ স্থানীয় সূত্রে খবর, হঠাৎ হনুমানের দল দুপুরে সামসাবাদ গ্রামে ঢুকে লণ্ডভণ্ড অবস্থা করে দেয় এলাকার। হনুমানের তাণ্ডবে ঘুম ছুটেছে। নন্দীগ্রামের সামসাবাদের বুড়ির মোড় এলাকার বাসিন্দারা বাড়ি থেকে না বেরোনোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। ফলে এখন গৃহবন্দি দশা। এখানে এখন খ্যাপা হনুমানের তান্ডব চলছে। হনুমানের কামড়ে এখনও পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ১২ জন।

হনুমানের দ্বারা গুরুতর জখমদের নন্দীগ্রাম সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়েছে। একাধিক বন দফতরের কর্মী এসেও সামাল দিতে পারছে না রামভক্তদের। পরিস্থিতি ক্রমাগত জটিল হয়ে পড়ছে। গোটা নন্দীগ্রামে হনুমানের আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। হনুমান ধরার ফাঁদ পাতা হয়েছে। তাদেরও নাকাল হতে হচ্ছে। বোঝা যাচ্ছে না এই পরিস্থিতি থেকে রেহাই মিলবে কি করে!‌

বন্ধ করুন