বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Mukutmanipur Reservoir: ঝড়ের পূর্বাভাসে ছাড়া হয়েছিল মুকুটমণিপুর জালাধারের জল, তাতেই তলিয়ে গেল তিন যুবক
মুকুটমণিপুর জলাধারের জল ছাড়ার জেরে তলিয়ে গেল তিন যুবক

Mukutmanipur Reservoir: ঝড়ের পূর্বাভাসে ছাড়া হয়েছিল মুকুটমণিপুর জালাধারের জল, তাতেই তলিয়ে গেল তিন যুবক

  • Mukutmanipur Reservoir: নিয়ম অনুযায়ী, জলাধার থেকে জল ছাড়ার আগে বহুবার সাইরেন বাজাতে হয়। আশেপাশের গ্রামের মানুষদের সতর্ক করার লক্ষ্যেই সেই সাইরেন বাজাতে হয়। প্রাথমিক অনুমান, তিন যুবকই স্থানীয় নন। তাই সাইরেন শুনে থাকলেও এর অর্থ বুঝতে পারেননি তাঁরা।

মুকুটমণিপুর জলাধারের জল ছাড়ার জেরে তলিয়ে গেল তিন যুবক। জানা গিয়েছে, ঝড়ের সম্ভাবনার জেরে আগেভাগে জল ছাড়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। সেই মতো জল ছাড়া হয়। এরপরই জলাধার সংলগ্ন বাঘজোড়া গ্রাম থেকে তিন যুবকের তলিয়ে যাওয়ার খবর মেলে খবর পেয়ে জলাধারের জল বন্ধ করে কর্তৃপক্ষ। জানা গিয়েছে, জল ছাড়ার দেড় ঘণ্টা পর তা বন্ধ হয়েছিল। এরপর শুরু হয় তল্লাশি। তবে তিন যুবকের মধ্যে একজনকে এখনও খুঁজে পাওয়া যায়নি।

আরও পড়ুন: ফের অন্ডালগামী বিমানে বিভ্রাট, মাঝ আকাশে ইঞ্জিনের সমস্যা স্পাইসজেটের উড়ানে

জানা গিয়েছে, বিয়ে বাড়ি উপলক্ষে বাঘজোড়া গ্রামে এসেছিলেন ওই তিন যুবক। কাছে কংসাবতী নদীতে স্নান করতে যান বিকেলে। এদিকে প্রায় সেই সময়ই জলাধারের জল ছাড়া হয়। এর জেরেই এই বিপত্তি ঘটে। অনেকক্ষণ বাড়ি না আসায় যুবকের বাড়ির লোকেরা চিন্তিত হয়ে খোঁজাখুঁজি করতে বের হন। এরপর নতীর তীরে গিয়ে চটি জামা পড়ে থাকতে দেখে বুঝতে পারেন বিষয়টি। এদিকে ঘটনায় প্রশ্ন উঠছে, কীভাবে, কেন এই বিপত্তি? নিয়ম অনুযায়ী, জলাধার থেকে জল ছাড়ার আগে বহুবার সাইরেন বাজাতে হয়। আশেপাশের গ্রামের মানুষদের সতর্ক করার লক্ষ্যেই সেই সাইরেন বাজাতে হয়। প্রাথমিক অনুমান, তিন যুবকই স্থানীয় নন। তাই সাইরেন শুনে থাকলেও এর অর্থ বুঝতে পারেননি তাঁরা।

এদিন ঝড়ের সম্ভাবনার জেরে পাঁচ হাজার কিউসেক জল ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল জলাধার কর্তৃপক্ষ। এই আবহে আচমকা নদীতে আসা জলের স্রোতে ভেসে যান তিন যুবক। পরে স্থানীয়রা দু’জনকে উদ্ধার করলেও একজন যুবক গতকাল সন্ধ্যা পর্যন্ত নিখোঁজ ছিলেন বলে খবর। এই আবহে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় পুলিশ। উদ্ধারকাজে নামে বিপর্যয় মোকাবিলা দফতরের কর্মীরাও।

বন্ধ করুন