প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

লকডাউনের মধ্যেই শান্তিপুরে মসজিদে নমাজ পাঠের অভিযোগ

  • স্থানীয়রা নমাজ আয়োজন করতে নিষেধ করলেও শোনেনি পরিবারটি। বিষয়টি স্থানীয় কাউন্সিলর সৌমেন মাহাতোকে জানান স্থানীয়রা।

মুর্শিদাবাদের পর এবার পড়শি জেলা নদিয়া। ফের লকডাউন উপেক্ষা করে নমাজপাঠের অভিযোগ। সবে বরাত উপলক্ষে নদিয়ার শান্তিপুরে একটি মসজিদে নমাজপাঠ হয় বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা। অভিযোগ, নমাজপাঠের সময় মানা হয়নি সামাজিক দূরত্বের বিধি। যার ফলে সংক্রমণ ছড়ানোর ভয়ে সিঁটিয়ে রয়েছেন এলাকাবাসী।

শান্তিপুরের কেসি দাস রোডের মণ্ডলপাড়া মসজিদে সবে বরাতে নমাজপাঠ হয় বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা। পারিবারিক ওই মসজিদটিতে নমাজপাঠের জন্য ভিড় করেছিলেন বহু মানুষ। অভিযোগ, সেখানে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার বিধি পালিত হয়নি। অভিযোগ, স্থানীয়রা নমাজ আয়োজন করতে নিষেধ করলেও শোনেনি পরিবারটি। বিষয়টি স্থানীয় কাউন্সিলর সৌমেন মাহাতোকে জানান স্থানীয়রা।

কাউন্সিলর জানিয়েছেন, ওই মসজিদের মালিকের সঙ্গে কথা বলে তাঁকে বড় জমায়েত করা থেকে বিরত থাকতে বলেছি। তেমন হলে হাতেগোনা কয়েকজনকে নিয়ে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে নমাজ পাঠ করা যেতে পারে। কিন্তু ৭ জনের বেশি মানুষ কোনও ভাবেই জমায়েত করতে দেওয়া যাবে না।

গত শুক্রবার মুর্শিদাবাদের বড়ঞাঁর গোপীপুরে এক মসজিদে জুম্মার নমাজ পড়তে জমায়েত হয়েছিলেন প্রায় হাজারখানেক মানুষ। খবর পেয়ে সেখানে হাজির হন পুলিশকর্তারা। বাহিনী মোতায়েন করে মসজিদ খালি করেন তাঁরা। সঙ্গে সতর্ক করেই ছেড়ে দেওয়া হয় মসজিদের ইমামকে।



বন্ধ করুন