বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > NB Tour: ছবির মতো পাহাড়ি গ্রাম গুরদুং, ফুলের গ্রামে ঘুম ভাঙবে পাখির ডাকে
হাত বাড়ালেই কাঞ্চনজঙ্ঘা।

NB Tour: ছবির মতো পাহাড়ি গ্রাম গুরদুং, ফুলের গ্রামে ঘুম ভাঙবে পাখির ডাকে

  • গুরুদুং থেকে সুর্যোদয়, সূর্যাস্ত কিংবা এই মায়াবী চাঁদের রাতে সব সময়ই সুন্দর। সেভাবে পর্যটকদের ভিড় নেই। যাঁরা মূল দার্জিলিং বাদ দিয়েও অফবিট জায়গায় ঘুরতে ভালোবাসেন তাঁদের এই জায়গাটা বেশ ভালো লাগবে। যাঁরা পাখির ছবি তুলতে ভালো বাসেন তাঁদের কাছেও এই জায়গাটা আদর্শ হতে পারে।

নিরিবিলিতে পাহাড় দেখবেন। সমতলের গরম থেকে বাঁচতে আপনার ঠিকানা হতেই পারে গুরদুং। শিলিগুড়ি থেকে দার্জিলিংগামী গাড়িতে উঠে পড়ুন। এনজেপি, দার্জিলিং মোড় থেকে ক্যাবও ভাড়া করতে পারেন গুরদুংয়ের জন্য। শেয়ার গাড়িতে মানেভঞ্জন পর্যন্ত যেতে পারেন। সেখান থেকে ফের অন্য গাড়িতে সোজা গুরদুং। এনজেপি থেকে মোটামুটি দূরত্ব ১৩০ কিমি।

মানেভঞ্জনের পরে পড়বে গুরদুং(Gurdum)। ছবির মতো পাহাড়ি গ্রাম। দার্জিলিংয়ের ভিড় নেই। তোমরা কবে এলে গো দার্জিলিংয়ে? বলে ঝাঁপিয়ে পড়া পাড়ার পিসির হঠাৎ দেখা নেই। মন ভরে দুদিন কাটিয়ে দিতে পারেন গুরদুংয়ে। শরীর তো ঠান্ডা হবেই। আর ভোরবেলা কাঞ্চনজঙ্ঘার দিকে তাকিয়ে দেখুন। মনের ভেতর জমে থাকা মন খারাপগুলোও কেমন উবে যাবে নিমেষে। 

প্রায় ৮ হাজার ফুট উঁচুতে সিঙ্গালিলা ন্যাশানাল পার্কের আওতায় গুরদুং। চারপাশে রোডোডেনড্রন আর পাইনের বন। একাধিক হোম স্টে তৈরি হয়েছে গুরদুং এলাকায়। সেখানে থাকতে পারেন। টেন্টেরও ব্যবস্থা আছে। আর পাশে যদি মনের মতো সঙ্গী পান তবে তো কথাই নেই। দিগন্ত জুড়ে পাইনের বন। সান্দাকফু থেকে অনেকে ট্রেকিংও করেন। দুপাশের পথ সবুজে ঘেরা। মায়াবী আলোয় পথ চলুন। আর পাহাড়কে সাক্ষী রেখে ভালো থাকার মন্ত্রটা আর একবার মনে মনে বলুন।

গুরুদুং থেকে সুর্যোদয়, সূর্যাস্ত কিংবা এই মায়াবী চাঁদের রাতে সব সময়ই সুন্দর। সেভাবে পর্যটকদের ভিড় নেই। যাঁরা মূল দার্জিলিং বাদ দিয়েও অফবিট জায়গায় ঘুরতে ভালোবাসেন তাঁদের এই জায়গাটা বেশ ভালো লাগবে। যাঁরা পাখির ছবি তুলতে ভালো বাসেন তাঁদের কাছেও এই জায়গাটা আদর্শ হতে পারে। হরেক পাখি আর হরেক ফুলের মেলা বসে যায় এই পাহাড়ি ছোট্ট গ্রামে।  

 

 

বন্ধ করুন