বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > NB Tour: পরে আর হবে না! ভরা বর্ষার আগেই ঘুরে আসুন নেওড়া Jungle Camp
নেওড়া জঙ্গল ক্যাম্প বরাবরই পর্যটকদের কাছে আকর্ষণীয়।(পল্লব সেনগুপ্ত, পর্যটক)

NB Tour: পরে আর হবে না! ভরা বর্ষার আগেই ঘুরে আসুন নেওড়া Jungle Camp

  •  পেখম মেলা ময়ূর দেখতে চান একেবারে বন্য পরিবেশে। ক্যাম্পের কাছে হাতির দলের আনাগোনা। গা ছমছমে বন্য পরিবেষ। সবটা পাবেন এই জঙ্গল ক্যাম্পে। তবে বেশি দেরি করবেন না। ফসকে যেতে পারে। 

হাতে আর মাত্র কয়েকটা দিন। এরপরই বন্ধ হয়ে যাবে উত্তরের জঙ্গল। ঝমঝমে বৃষ্টিতে ভিজবে জঙ্গল। সেই সময়টা বন্য জীবজন্তুজের প্রজননের সময় বলে গণ্য করা হয়। সেই সময় পর্যটকদের জন্য় বন্ধ করে দেওয়া হয় জঙ্গলের দরজা। মোটামুটি ভাবে ১৫ জুন থেকে ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত উত্তরবঙ্গের জঙ্গল বন্ধ হয়ে যায়।

 গরুমারা, জলদাপাড়া, চিলাপাতা, বক্সা সহ বিভিন্ন বনাঞ্চল এই কয়েকমাস বন্ধ থাকে। সেক্ষেত্রে হাতে আর কয়েকদিন মাত্র সময়। তার আগেই ঘুরে আসতে পারেন ডুয়ার্সের জঙ্গলে। এনিয়ে সরকারের পর্যটন দফতরের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেন।

নেওড়ার জঙ্গল ক্যাম্প বরাবরই পর্যটকদের টানে। একেবারে নিঝুম জঙ্গল ঘেরা এলাকায় থাকার ব্যবস্থা। নিঃসন্দেহে জঙ্গলপ্রেমীদের কাছে অত্যন্ত প্রিয় এই জায়গা। গরুমারা জঙ্গলের মধ্য়ে এখানে সরকারি উদ্যোগে থাকার ব্যবস্থা। পাশ দিয়েই বয়ে যাচ্ছে নেওড়া নদী। যেদিকেই তাকানো যায় গাছের সারি। ক্যাম্পের বারান্দা থেকে খালি মনে হয় কোনও বন্য জীবজন্তু যেন লক্ষ্য রাখছে আপনাকে। আর ভাগ্য ভালো থাকলে তাদের সঙ্গে দেখা হয়ে যেতে পারে আপনারও।

জঙ্গলের মধ্যে দিয়ে মূল রাস্তা থেকে বেশ কিছুটা যাওয়ার পরে এই ক্যাম্প চোখে পড়ে। মূলত কলাখাওয়ার জঙ্গল বলেই পরিচিত এটি। তবে বন্য জীবজন্তুরা যাতে ক্য়াম্পের কাছে আসতে না পারে সেকারনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা করা আছে।

এই ক্যাম্পে থাকার পর জঙ্গল সাফারিও করা যায়। চারটি সুন্দর কটেজ রয়েছে এখানে। তবে পর্যটন দফতরের অনুমতি ছাড়া কোনওভাবেই এখানে যাওয়া যাবে না। বাইসন, হাতি, ময়ুরের দেখা পেতে পারেন আশপাশেই।

এনজেপি থেকে গাড়ি ভাড়া করে মাল, সেভক, চালসা হয়ে যেতে পারেন নেওড়াতে। লাটাগুড়ি হয়েও যাওয়া যায়।

 

বন্ধ করুন