বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > রাত পর্যন্ত ছিলেন, চিঠি দিয়েছিলেন নেতাজি, স্মৃতি আঁকড়ে পাঁচথুপির পরিবার

রাত পর্যন্ত ছিলেন, চিঠি দিয়েছিলেন নেতাজি, স্মৃতি আঁকড়ে পাঁচথুপির পরিবার

পাঁচথুপিতে গিয়েছিলেন নেতাজি, দাবি ঘোষ মল্লিক পরিবারের 

পাঁচথুপির ঘোষ মৌলিক পরিবারে রাতের খাওয়াদাওয়া করেছিলেন তিনি। ওই পরিবারের সঙ্গে নিবিড় যোগাযোগ ছিল তাঁর।

মুর্শিদাবাদের কান্দি মহকুমার বড়ঞা থানার অন্তর্গত পাঁচথুপি। সেখানে ১৯২৯ সালের মে মাসে সভা করতে এসে রাত পর্যন্ত ছিলেন দেশনায়ক বীর নেতাজি। এমনটাই দাবি সেখানকার ঘোষ মৌলিক পরিবারের। পাঁচথুপির ঘোষ মৌলিক পরিবারে রাতের খাওয়াদাওয়া করেছিলেন তিনি। ওই পরিবারের সঙ্গে নিবিড় যোগাযোগ ছিল তাঁর। চিঠিও দিয়েছিলেন তিনি। সেই চিঠি আজও আঁকড়ে রেখেছে ঘোষ মৌলিক পরিবার। পরিবারের অন্যতম সদস্যা শর্মিলা ঘোষ মৌলিক বলেন, আমার শ্বশুরমশাই যখন স্কটিশচার্চে পড়তেন তখন থেকে তাঁর সঙ্গে নেতাজির যোগাযোগ। নেতাজি বাবাকে অনেক চিঠি দিয়েছিলেন। তরুণের স্বপ্ন বইটিও তিনি দিয়েছিলেন। আমি অত্যন্ত গর্ববোধ করি এই পরিবারের বধূ হিসাবে এসেছি। 

 

পরিবার সূত্রে দাবি,  চিঠিতে লেখা রয়েছে, তোমরা সকলে কেমন আছ?  তুমি বোধহয় আজকাল শহর ছেড়ে গ্রামবাসী হয়েছ। যদিও পাঁচথুপিতে ঠিক গ্রাম বলা যায় না….

 পরিবারের অপর সদস্য সুদীপ মোহন ঘোষ মৌলিক বলেন, ১৯২৯ সালের মে মাসে নেতাজি পাঁচথুপিতে এসেছিলেন। এখানে সেই সময় রাজনৈতিক একটি সভা হয়েছিল। সেখানেই তিনি এসেছিলেন। এরপর তিনি রাত পর্যন্ত আমাদের বাড়িতে ছিলেন। খাওয়া দাওয়া করে রাতে যখন বিশ্রাম নিচ্ছিলেন তখন খবর পান ব্রিটিশ পুলিশ চলে এসেছে। তখন তিনি হেঁটে ময়ুরাক্ষী নদী পেরিয়ে বর্ধমানের দিকে চলে যান। তিনি যে ঘরটাতে ছিলেন সেটি পরবর্তী সময়ে ভেঙে পড়ে। পরবর্তীতে শরৎ বসুও এবাড়িতে এসেছিলেন। 

 

বন্ধ করুন