বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > মোদীর কাটআউটের নীচে শহিদ বেদিতে নেতাজির ছবি, বিতর্কের মুখে BJP
এই ছবি ঘিরেই বিতর্ক। (ছবি সৌজন্য ফেসবুক)
এই ছবি ঘিরেই বিতর্ক। (ছবি সৌজন্য ফেসবুক)

মোদীর কাটআউটের নীচে শহিদ বেদিতে নেতাজির ছবি, বিতর্কের মুখে BJP

  • মোদীর কাট আউটের নীচের দিকে শহিদ বেদিতে ছিল নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর ছবি।

শহিদ বেদিতে নেতাজির ছবি রেখে তাঁর ১২৫তম জন্মজয়ন্তী পালন করল বিজেপি। শুধু তাই নয়, সেই শহিদ বেদি তৈরি করা হয়েছিল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিশাল কাট–আউটের পাশে। সেই কাটআউটে মোদীর পায়ের কাছে শহিদবেদিতে শোভা পাচ্ছিল ‘দেশনায়ক’ নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর ছবি। পূর্ব মেদিনীপুরের খেজুরিতে জন্মজয়ন্তী পালনে খোদ নেতাজিকেই অবমাননা করা হয়েছে বলে সরব হল রাজ্যের শাসকদল। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর দীর্ঘ কাটআউটের পায়ের কাছে নেতাজির ছবি বসিয়ে জন্মজয়ন্তী পালনের অভিযোগ উঠেছে বিজেপির বিরুদ্ধে।

শনিবার দলের খেজুরি–১ পূর্ব মণ্ডল কমিটির উদ্যোগে ধোবাপুকুরে দলীয় কার্যালয়ে নেতাজিকে এভাবেই ‘শ্রদ্ধা’ জানাল বিজেপি। সোশ্যাল মিডিয়ায় ওই ছবি ভাইরাল হতেই চারদিকে শোরগোল পড়ে গিয়েছে। এমনকী শহিদবেদিতে নেতাজির ছবি রাখা বাঙালির ভাবাবেগে আঘাত বলে অনেকেই দাবি করছেন। শনিবার নেতাজির ১২৫তম জন্মবাষির্কীর সূচনা অনুষ্ঠান পালিত হয়। কলকাতায় কেন্দ্রীয় সরকারের এক অনুষ্ঠানে ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি ওঠায় প্রতিবাদে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সামনে নেতাজি সম্পর্কে বক্তৃতা দেননি মুখ্যমন্ত্রী। রাজ্য–রাজনীতিতে সমালোচনার ঝড় তুলেছে ওই ঘটনা।

ধোবাপুকুরে দলীয় কার্যালয়ের সামনে বিজেপির কাঁথি সাংগঠনিক জেলার সাধারণ সম্পাদক তাপস দলাই, মণ্ডল সভাপতি সুমন দাস–সহ আরও অনেকে উপস্থিত ছিলেন। শহিদ বেদিতে নেতাজির ছবি রেখেই তাপসবাবু জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন। কিছুক্ষণ পর নেতাদের ভুল ভাঙে। তড়িঘড়ি নেতাজির ছবি সরিয়ে উঁচুতে রেখে মালা পরিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হয়। এই বিষয়ে তাপসবাবু বলেন, ‘‌জাতীয় পতাকা তোলার সময় কেউ শহিদ বেদির কাছে নেতাজির ছবি রেখে দিয়েছিল। পরে আমরা উঁচুতে রেখে শ্রদ্ধা জানিয়েছি। নেতাজি আমাদের আদর্শ।’‌

ছবিতে দেখা যায়, বিজেপির কার্যালয়ের সামনে গেরুয়া কাপড়ে ঢাকা রয়েছে। দরজার সামনে প্রধানমন্ত্রীর বিরাট কাটআউট। পেছনে বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারীর ছবি–সহ ‘স্বাগতম’ ব্যানার। আর প্রধানমন্ত্রীর কাটআউটের ডানদিকে নীচে তাঁর পায়ের কাছে নেতাজির ছবি রাখা হয়েছে। সেই ছবিতে জেলা বিজেপির সাধারণ সম্পাদক তাপস দলুই, মণ্ডল নেতা সুমন মণ্ডল প্রমুখ মালা দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। 

শহিদ বেদিতে নেতাজির ছবি রেখে জন্মজয়ন্তী পালনের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন বঙ্গীয় প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির জেলা সম্পাদক সতীশ সাউ। তিনি বলেন, ‘‌এই ঘটনায় নেতাজিকে এবং তাঁর ভাবধারায় বিশ্বাসী সকলকে অসম্মান করা হয়েছে। অন্তর থেকে শ্রদ্ধা জানাতে না পারলে এই ধরনের অনুষ্ঠান করার কী দরকার?’‌

জালালউদ্দিন খান নামে স্থানীয় এক তৃণমূল কংগ্রেস নেতা ওই ছবি পোস্ট করে লিখেছেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর পায়ের নীচে নেতাজির ছবি রেখে পরাক্রম দিবস পালন করল বিজেপি। এতে নেতাজির অপমান। বাংলায় আর কত কী দেখতে হবে!’ সারা বাংলা নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু ১২৫তম জন্মজয়ন্তী উদযাপন কমিটির সম্পাদক চিন্মই ঘোড়ই বলেন, ‘‌শহিদ বেদিতে নেতাজির ছবি রাখাটা অন্যায়। ভোটের বাজারে নেতাজিকে স্মরণ করতে গিয়ে বিজেপি কী করছে, নিজেরাই জানে না।’‌

এই বিষয়ে জেলা তৃণমূল সভাপতি সৌমেন মহাপাত্র বলেন, ‘বিজেপির কৃষ্টি, সংস্কৃতি গোটা দেশের মানুষ জানে। যেভাবে প্রধানমন্ত্রীর ছবির তলায় নেতাজিকে রেখে তার জন্মজয়ন্তী পালন করা হল এতে দুঃখ পাওয়া, যন্ত্রণা পাওয়া ছাড়া আমাদের করার কিছুই নেই। যোগ্য জবাব বাঙালিরা দেবে।’‌

বন্ধ করুন