বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Jhalda Municipality: ঝালদা পুরসভার পুরপ্রধানের কাউন্সিলর পদ খারিজ, সংকটে কে এলেন নয়া দায়িত্বে?

Jhalda Municipality: ঝালদা পুরসভার পুরপ্রধানের কাউন্সিলর পদ খারিজ, সংকটে কে এলেন নয়া দায়িত্বে?

নতুন চেয়ারম্যান হলেন তৃণমূল কংগ্রেসের সুদীপ কর্মকার।

গত সোমবার কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশ মেনে ঝালদা পুরসভার পুরপ্রধান পদে বসেছিলেন নির্দল জয়ী কাউন্সিলর শীলা চট্টোপাধ্যায়। এই প্রথম কোনও মহিলা ঝালদা পুরসভায় পুরপ্রধান নির্বাচিত হন। কংগ্রেসের ৬টি ও নির্দলের এক কাউন্সিলর সহ ৭টি ভোটে তিনি পুরপ্রধান নির্বাচিত হন। 

ঝালদা পুরসভায় নয়া সংকট দেখা দিয়েছে। কারণ শীলা চট্টোপাধ্যায়ের কাউন্সিলর পদ খারিজ হয়েছে। ৬ মাসের আগেই দলত্যাগ করেন শীলা চট্টোপাধ্যায়। তৃণমূল কংগ্রেস ছেড়ে নির্দল হন তিনি। ১৯৯৩ সালের পুর–আইন অনুযায়ী তা করা যায় না বলে যুক্তি রাজ্যের। এবার নতুন চেয়ারম্যান হলেন তৃণমূল কংগ্রেসের সুদীপ কর্মকার। কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশে শীলা চট্টোপাধ্যায় পুরপ্রধান হয়েছিলেন। আর মহকুমাশাসকের নির্দেশে আজ, বৃহস্পতিবার সেই শীলা চট্টোপাধ্যায়ের কাউন্সিলর পদ খারিজ হয়ে গেল। সুতরাং ডামাডোল শুরু হয়েছে ঝালদা–সহ গোটা পুরুলিয়ায়।

আজ শীলা চট্টোপাধ্যায়ের কাউন্সিলর পদ খারিজ করে দিয়ে মহকুমাশাসক তার বদলে রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়ন দফতর ৫ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সুদীপ কর্মকারকে পুরপ্রধান হিসেবে মনোনীত করে নোটিশ দিয়েছেন। সুদীপ কর্মকার আগে এই পুরসভার উপ–পুরপ্রধান ছিলেন। এই ঘটনার পর প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী জানান, বিষয়টি নিয়ে তাঁরা আদালতের দ্বারস্থ হবেন। আর এই গোটা ব্যাপারটি ‘প্রশাসনিক’ বলে মন্তব্য করতে চাননি তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক কুণাল ঘোষ।

এদিকে গত সোমবার কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশ মেনে ঝালদা পুরসভার পুরপ্রধান পদে বসেছিলেন নির্দল জয়ী কাউন্সিলর শীলা চট্টোপাধ্যায়। এই প্রথম কোনও মহিলা ঝালদা পুরসভায় পুরপ্রধান নির্বাচিত হন। কংগ্রেসের ৬টি ও নির্দলের এক কাউন্সিলর সহ ৭টি ভোটে তিনি পুরপ্রধান নির্বাচিত হন। তবে দু’দিন কাটতে না কাটতেই আবার জটিলতা দেখা দিল শীলা চট্টোপাধ্যায়ের পদ নিয়ে। এই নিয়ে নতুন করে বিতর্ক দানা বেঁধেছে।

অন্যদিকে শীলা চট্টোপাধ্যায়ের কাউন্সিলর পদ খারিজ করলেন ঝালদার মহকুমাশাসক ঋতম ঝা। আর তার এক ঘণ্টার মধ্যেই সুদীপ কর্মকারকে নয়া পুরপ্রধান ঘোষণা করে জারি হল সরকারি বিজ্ঞপ্তি। প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী বলেন, ‘একটা ১২ সদস্যের মিউনিসিপ্যালিটি। আদালতের নির্দেশে যার ভার আমরা পেয়েছিলাম। তাতেও তৃণমূল ‌কংগ্রেস এসডিও–কে দিয়ে এটা করল। এমন স্বৈরতান্ত্রিক সরকার আর কোথায় পাওয়া যাবে না। এই সরকার কী করে গণতন্ত্রের কথা বলে আমরা জানি না। এসবের বিরুদ্ধে আদালতে যাব।’ আর শীলা চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‘‌আমি আদালতে যাচ্ছি।’‌ তবে কুণাল ঘোষের প্রতিক্রিয়া, ‘‌এটা প্রশাসনিক বিষয়। রাজনৈতিক বক্তব্য রাখার জায়গা নেই।’‌

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

বাংলার মুখ খবর
বন্ধ করুন

Latest News

আজ কারা ডেটে যেতে পারেন? দেখুন কী বলছে মাসের প্রথম দিনের প্রেম রাশিফল এই শেষ সুযোগ! পকেট ভরাতে মার্চের শুরুতে চোখ থাকুক এই সব ডেডলাইনে শনিবারই নশিপুর সেতুর উদ্বোধন! কলকাতা থেকে উত্তরবঙ্গ যেতে ৩ ঘণ্টা কম লাগবে কেন খাবেন ড্রাগন ফল? রোজ খেলে কীই বা হবে? জানলে বিশ্বাস করতে পারবেন না তারুণ্যের সঙ্গে অভিজ্ঞতার মিশ্রণ ঘটিয়ে গড়তে হবে একটা ভালো দল- মুশফিকুর রহিম দুরন্ত ইনিংস রাদারফোর্ডের, টানটান ম‌্যাচে করাচির বিরুদ্ধে শেষ বলে জয় কোয়েট্টার ভয়াবহ আগুন ঢাকার শপিং মলে, লেলিহান শিখায় পুড়ে প্রাণ গেল ৪৩ জনের সিরিজের শেষ টেস্ট খেলার আগে গলফ কোর্টে সময় কাটাল বেন স্টোকস অ্যান্ড কোম্পানি জামনগরে স্টেজ রিহার্সল শুরু রিহানার, কত নিচ্ছেন পপ তারকা আম্বানির বিয়েতে গাইতে? WPL-র এক ম্যাচে সব থেকে বেশি ছক্কা, শেফালি-মন্ধনার তাণ্ডবে ভাঙল সর্বকালীন রেকর্ড

Copyright © 2024 HT Digital Streams Limited. All RightsReserved.